সাহিত্য

প্রয়াস তোমার জন্মদিন

- লিজা-তিরানব্বইতে জন্ম তোমার তখন ছিলে ছোট্ট শিশু, এখন তোমার ভরা যৌবন থাকে না যেন ভয় ডর কিছু। ছোট্ট শিশু যেমনি করে বেড়ে ওঠে মায়ের কোলে, প্রয়াস তুমি বড় হলে আমাদের মনের কোণে। ছোট্ট ঘরে জন্মে ছিলে তুমি হলে মাথার মণি, এখন তোমার ঊনচল্লিশ...

মা

=আব্দুল কাইয়ুম=মাগো আমায় দাওনা যেতে মুক্তি যুদ্ধে শরিক হতে পাক বাহিনীর অত্যাচারে ভূগছে জাতি তিলে তিলে। মা আমায় বলছে ডেকে শোন বাবা দিতুম যেতে কিন্তু! তুমি আমার একটি ছেলে নাইকো তোমার বাবা বেঁচে। বলছি আমি মায়ের দ্বারে মাগো ঝরছে রক্ত সারা দেশে পাক বাহিনীর অত্যাচারে। মাগো...

ওরা রাজাকার

=মোহাম্মদ আলী অন্তর=যারা বাঙালি হিসেবে পরিচয় দিতে সংকোচ করে ওরা রাজাকার। যারা বাংলায় কথা বলতে লজ্জা পায় ওরা রাজাকার। যারা বাঙালি সাজে সাজতে লজ্জা পায় ওরা রাজাকার। যারা বাঙালির খাবার খেয়ে আতৃপ্তি পায় ওরা রাজাকার। যারা পথে ঘাটে দাম্বিকতা দেখায় ওরা রাজাকার। যারা দুর্নীতি...

দাম দিয়ে কেনা বিজয়

=মফিজুর রহমান জামাল=চোখেতে স্বপ্ন, মনে উল্লাস নেমেছিল বীর বাঙ্গালীর ঢল হাজার কন্ঠে আওয়াজ ছিল চল, রেসকোর্স মাঠেতে চল। দুশো বছরের পরাধীনতা চব্বিশ বছর অত্যাচার অবসান হলো, নুতন সূর্য্য উঠলো এই বাংলায় আবার । হিং¯্র হায়েনা, রক্ত লোলুপ পাকিস্তান সেনাবাহিনী বীর বাঙ্গালীর পায়ের কাছে নতজানু হলো...

বিশেষ দ্রষ্টব্য

-মোশতাক আহমদ-কল্যাণীয়াসু, এই মুহূর্তটি যে খুব শিগগির আসবে, তোমাকে লিখতে বসতে হবে, তা জানা হয়ে গিয়েছিল কিছুকাল আগেই। মনের প্রস্তুতি ছিল। কিন্তু লিখতে আমি বড় বিব্রত বোধ করছি। মনে হয়, তোমার সাথে প্রথম দূরভাষ কথোপকথন...

মুক্তি চাই

=মো. নয়ন আলী= খাঁচায় বন্দী পাখি হাজারো বার বলে আমি মুক্তি চাই। কিন্তু কেউ কী তারে মুক্ত করে? সে চায় উড়তে পৃথিবীটা ঘুরতে পারে না কিছুই করতে কারণ ইচ্ছেগুলো বাধা অন্যের হাতে। আমি যা চাই তা হয়না আমার ইচ্ছে মত খায় না আমি চলি তোমার মত জমা...

সোনার বাংলা

-পলক রায়- ফুল পাখিদের আপন বাড়ি সবুজ-শ্যামল মাঠ নদীমাতৃক এই দেশেতে সুজন মাঝির ঘাট। বিলে- ঝিলের শাপলা শালুক মনটি যে নেয় কেড়ে কি অপরূপ এই দেশেতে উঠছে নজরুল বেড়ে। রবি ঠাকুরের হাতছানি সোনার বাংলায় পড়ছে ন্যায়ের পথে চলতে তরুণ লড়াই শুরু করছে। শেখ মুজিবের সোনার বাংলা দেখায় রঙিন...

আজব বনে

একদিন পথটা ভূলে স্বপ্নের ভিতরে গিয়েছিলাম দূর জঙ্গলে, গিয়ে দেখি গাছপালার মেলা তার ভেতর পশু-পাখির খেলা,আরে, আজব কি কা-বাতাসের টানে সব ল-ভ-, আমি ভয়ে গাছের এক কোণে আল্লাহকে স্মরণ করছি মনে, এক পা,দু পা করে নাড়ি ভাবছি কিভাবে যাবো বাড়ি, ভাগ্যিস, ঘুম ভেঙ্গে...

ঘুম

কিছুক্ষণ পর পর লেপের নিচ থেকে নাক বের করে শ্বাস নিয়েই আবার মাথা ঢুকিয়ে ফেলছি। দুপুরবেলা হুট করে পুকুর পাড়ে গেলে এমন করে মাথা লুকায় দক্ষিণ পুকুরের কচ্ছপেরা। মাঘের কনকনে ঠান্ডা, দরজা জানলা সব...

অবেলায়

=মো.তসলিম উদ্দিন= অবেলায় অবলা নারী ছাড়ি ঘরবাড়ি রৌদ্র দগ্ধ ধরণীতল এলো কোথা হতে ঝরে দেয়া অনর্গল। ভিজিল বন ভিজিল মন ভিজিল শাড়ির আঁচল। শন শন সমিরণ চারিদিকে ঘণ বন করে মাতামাতি ঝরঝর বেগে মাথে নেই ছাতি সিক্ত কেশ সিক্ত বেশ সিক্ত তনু তার আলো আঁধারে রূপের বাহার।