Home সাহিত্য

সাহিত্য

এবং দুটি মৃত্যু

<রেহেনা ইয়াসমিন বিথী> ১. শোকে স্তব্ধ আজ বিশাল বাড়িটি। মিসেস চৌধুরী আজ পৃথিবীর মায়া ত্যাগ করে চলে গেলেন! রেখে গেলেন এই বিশাল বাড়িতে তাঁর সাজানো সংসার, উচ্চপদস্থ ছয়টি ছেলেমেয়ে, আর যত্নে গড়া সুসজ্জিত ফুলের বাগান। বয়স...

বিপরীত মেরু

<মোহাঃ জোনাব আলী>তুমি যতটা ভাল আছো আমি ততটাই মন্দ আছি। আর তোমারতো ভাল থাকারই কথা যেহেতু আমার জীবনে এখন নীরবতা। তোমার জীবনে যতটা খুশির সুর বইছে আমার জীবনে ততটাই কান্নার ভার সইছে। তোমার তো এখন রঙ্গিন ফাগুন মৌসুম আর আমার চোখে...

বর্ষার কদম ফুল

<হামীম রায়হান>একটা ভালো বেতনের চাকরি ও ঘরে নতুন বৌ রুমা। চিমচাম, সাজানো সংসার আকাশের। ঝামেলা নেই, নেই চাহিদার বাড়াবাড়ি। অফিস থেকে সন্ধ্যার আগে আগে বাসায় ফিরে আকাশ। গোধুলির আলোয় দু’জন পাশাপাশি বারান্দায় দাঁড়িয়ে সূর্যাস্ত...

অব্যক্ত অনুভূতি

মোহাঃ জোনাব আলী ছোট্র মেয়েটি, নাম তার পলি। বয়স পাঁচ কি ছয়। কথা বলতে শেখা অবধি খুবই চটপটে। যাকে-তাকে যেটা-সেটা প্রশ্ন করে বসে। যেন ষাট বছরের বুড়ি। তার সাথে কথা বলতে গিয়ে সবাই হেরে যায়।...

পুড়ছে

হামীম রায়হানপ্রকৃতিতে লাগল আগুন, পুড়ছে দেখো সবি, নেই তো ছায়ার চিহ্ন কোথাও, ঢালছে আগুন রবি। পুড়ছে মাঠ, পুড়ছে ঘাঠ, পুড়ছে গাছের পাতা, পুড়ছে বাড়ি, বাড়ির চালা, পুড়ছে ন্যাড়া মাথা। পুড়ছে আকাশ, পুড়ছে মেঘ, পুড়ছে হাওয়ার দল, পুড়ছে নদী, নদীর পাড়, আর পুকুরের জল। পুড়ছে বাজার, বাজার...

মাটির তৃষ্ণা

আসিফ আল রাহমানীআষাঢ় এত অসার কেন তুমি? বাদলের মাদল বাজে কই তোমার, তব পাষাণে কাঠ হয়েছে ভূমি পুড়ে গেছে যেন মাটির দেহ হাড়।গগনের নগ্ন দেহের নীল উত্তাপ তব পানে চেয়ে আছে ভুমি, প্রকৃতির চোখে যেন মরণ ছাপ ক্লান্ত পাখির নিঃশ্বাস...

সেদিন বৃষ্টি ঝরেছিল

রেহানা বীথি- বড়ভাই, হালকা হবে, হালকা? - দেন একটু কিছু। এই, অল্প... একেবারেই হালকা! হাতের তালুতে কয়েকটা খুচরো টাকা নাচিয়ে বাড়িয়ে দিল সেই হাত। - দেন বড়ভাই, হালকা দেন। প্লিজ গিভ মি। আই অ্যাম খুব হাংরি। এই...

হাসি

মোহাঃ জোনাব আলীপরের কথায় হাসো যদি সেতো হাসি নয়গো নিজেই তুমি হেসে দেখো হাসি কেমন হয়গো ॥ হাসির কাজ করো যদি আসবে মুখে হাসি পরের হাসি হেসে কারো জীবন হয়না খুশি ॥ হাসার যদি ইচ্ছে গো হয় পরোপকার করো আত্মা তোমার হাসবে ভাই যতই দুঃখে...

রোজার শিক্ষা

হামীম রায়হানকমাতে এল পাপের বোঝা- পবিত্র মাস রোজা, মন্দের পথ ছেড়ে এবার- ধর পথটি সোজা। সোজা পথে হাঁটলে পাবি- বেহেশতের চাবি, মৃত্যু এলে হাসিমুখে- শান্তির সাথে যাবি। শান্তির পথ নয়তো কঠিন, রোজায় আছে বিলীন, রোজার শিক্ষায় গড়লে জীবন- রক্ষা মানবদ্বীন।

রবীন্দ্রনাথ

হামীম রায়হানজোড়াসাঁকোর ঠাকুর বাড়িতে- ছড়ায় আলো রবি, পাঠ্যবইয়ে মন বসে না, পানসে লাগে সবি। মন থাকে না ঘরের কোণে, যায় পেরিয়ে ঘর, ছড়া, গল্প, ছন্দ, কথায়- ভুলেন আপন পর। গান, কবিতায় সেই ছেলেটি- করে বিশ্বজয়, তাঁর আলোতে এই বাংলা- হলো আলোকময়। বাংলা থেকে বিশ্বকবি, পূজ্য সকাল- রাত, যুগে...