মামলার জট কমাতে বিভিন্ন আদালতে শিগগির বিচারক নিয়োগের উদ্যোগ

87

adalotদেশের বিভিন্ন আদালতের শূন্যপদ পূরণে খুব শিগগিরই দুই শতাধিক বিচারক নিয়োগের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। তার মধ্যে ২৯ জন জেলা দায়রা জজ ও ১০০ জন সহকারী জজ রয়েছে। তাছাড়া নারী ও শিশু দমন ট্রাইব্যুনালের ৪১টি বিচারক এবং সন্ত্রাস দমন বিশেষ ট্রাইব্যুনালে ৭টি বিচারক পদসহ সর্বমোট ৪৮টি পদ সৃষ্টির জন্য জনপ্রশাসন ও অর্থমন্ত্রণালয়ের অনুমোদন পাওয়া গেছে। ওসব পদসমূহে স্বল্পসময়ের মধ্যেই নিয়োগ দেয়া হবে। বর্তমানে দেশের বিভিন্ন আদালতের বিভিন্ন স্তরে বিচারকের ৯৫৫টি অনুমোদিত পদের মধ্যে ৬৫৭ পদ পূর্ণ এবং ২৯৮ পদ শূন্য রয়েছে। ওসব শূন্য পদে নিয়োগের জন্যই উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। আইন মন্ত্রণালয় সংশ্লিষ্ট সূত্রে এসব তথ্য জানা যায়। সংশ্লিষ্ট সূত্র মতে, বর্তমানে দেশজুড়ে নিম্ন আদালতে জেলা জজ, অতিরিক্ত জেলা জজ, সিনিয়র সহকারী জজ, জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট এবং সহকারী জজের পদ রয়েছে। আদালতগুলোতে বিচারকের শূন্য পদ পূরণে সরকার নতুন করে সহকারী জজ পদে নিয়োগ দিতে যাচ্ছে। কারণ দেশে বিভিন্ন আদালতে প্রায় ৩২ লাখ মামলা জট রয়েছে। আশা করা হচ্ছে বিচারক নিয়োগের ফলে মামলা জট অনেকাংশে কমে আসবে। বিচারক নিয়োগ সংক্রান্ত নথি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় হয়ে রাষ্ট্রপতির দফতরে পাঠানো হবে। ওই নথির ওপর প্রধানমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রপতির চূড়ান্ত অনুমোদনের পর আইন মন্ত্রণালয় নিয়োগের জন্য প্রজ্ঞাপন জারি করবে।
সূত্র জানায়, জুডিশিয়াল অফিসারদেও প্রেষণে অন্যত্র নিয়োগ দেয়ার জন্য নিম্ন আদালতে বিচারক ঘাটতি রয়েছে। ওই ঘাটতি পূরণের জন্য দ্রুত বিচারক নিয়োগ দেয়া জরুরি। অনেক বিচারকই আইন মন্ত্রণালয়, আইন কমিশন, জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়, পুলিশ প্রশাসন, পাবলিক সার্ভিস কমিশন, জাতীয় সংসদ সচিবালয়, বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনসহ বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানে প্রেষণে কর্মরত আছেন। ইতিমধ্যে ২০১০ সাল থেকে উচ্চ ও নিম্ন আদালতে নিয়োগ দেয়া হয়েছে ৬৫১ জন বিচারক। বিচারক নিয়োগের পাশাপাশি নিম্ন আদালতে বদলি ও পদোন্নতিও অব্যাহত রয়েছে। একই সময়ে ৩৪০ জনকে অতিরিক্ত জেলা জজ হতে জেলা জজ পদে, ২৭৫ জনকে যুগ্ম জেলা জজ হতে অতিরিক্ত জেলা জজ পদে, ৩৪০ জনকে সিনিয়র সহকারী জজ হতে যুগ্ম জেলা জজ পদে এবং ৭৬৩ জনকে সহকারী জজ হতে সিনিয়র সহকারী জজ পদে পদোন্নতি দেয়া হয়েছে। সূত্র আরো জানায়, জুডিশিয়াল সার্ভিস কমিশনের নবম পরীক্ষায় ১০০ জন সহকারী জজকে নিয়োগের জন্য সুপারিশের ফাইল এসেছে। শিগগিরই সুপ্রিমকোর্টের সুপারিশক্রমে শূন্যপদে নিয়োগ দেয়া হবে। তাছাড়া দুই দফায় ২৭০ জনের নিয়োগের জন্য কমিশনে পাঠানো হয়েছে। বর্তমানে জেলা জজ ও সমপর্যায়ের ২৯টি শূন্যপদ রয়েছে। ওসব শূন্য পদ পূরণের জন্য অতিরিক্ত জেলা জজ পদে পদোন্নতির প্যানেল প্রস্তুত করে এবং যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ পর্যায়ে ৭৭টি পদে নিয়োগ ও বদলির জন্য সুপ্রিমকোর্টে পাঠানো হয়েছে। তাছাড়া নারী ও শিশু নির্যাতন দম ট্রাইব্যুনালের ৪১টি বিচারক এবং সন্ত্রাসবিরোধী বিশেষ ট্রাইব্যুনালের ৭টি বিচারক পদসহ সর্বমোট ৪৮টি পদ সৃজনের জন্য জনপ্রশাসন ও অর্থ মন্ত্রণালয়ের অনুমােদন পাওয়া গেছে। তবে সহকারী জজ ও সিনিয়র সহকারী জজ পর্যায়ের ৮৩ জন কর্মকর্তার বদলির প্রস্তাবটি এখনো পেন্ডিং রয়েছে। জেলা জজ ও সমপর্যায়ে শূন্যপদ ২৯, যুগ্ম ও জেলা দায়রা জজ সমপর্যায়ে ৭৭ জন, সহকারী জজ/ সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট/মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্র্রেট আদালতে সহকারী জজ /সিনিয়র সহকারী জজ পদে ৬৪টি, জডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট/সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট পদে ১৮৫টি, মেট্রোপলিটন ৭টি, জেলা লিগ্যাল এইড কর্মকর্তা ৪২টিসহ মোট ২৯৮টি পদ শূন্য আছে। বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিসেসের বিদ্যমান কাঠামো অনুয়ায়ী সহকারী জজের পদসংখ্যা ১০৫টি। সহকারী জজ সমপর্যায়ের জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের পদসংখ্যা ২৮৬টি। তাছাড়া ৮ম বাংলাদেশ জুডিশিয়াল সার্ভিস পরীক্ষার মাধ্যমে ৫৩ জন কর্মকর্তা নিয়োগের কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। যার ফলে কর্মরত ও প্রক্রিয়াধীন কর্মকর্তার মোট সংখ্যা ৩৯৫ জন। বাংলাদেশ জুডিসিয়াল সার্ভিসে জেলা জজ ও সমপর্যায়ের মোট অনুমোদিত পদ আছে ১৮৮টি। সেখানে শূন্যপদ রয়েছে ২৯টি। শূন্যপদের মধ্যে রয়েছে জেলা ও দায়রা জজ টাঙ্গাইল, জেলা ও দায়রা জজ চট্টগ্রাম, জেলা ও দায়রা জজ ফরিদপুর, জেলা ও দায়রা জজ রাজবাড়ী, জেলা ও দায়রা জজ পাবনা, নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল ফরিদপুরসহ শেরপুর, নেত্রকোনা, নীলফামারী, নাটোর, চাঁদপুর, দিনাজপুর, বাগেরহাট, সুনামগঞ্জ, হবিগঞ্জ, সাতক্ষীরা, চট্টগ্রাম ট্রাইব্যুনাল নং-৩, কুড়িগ্রাম, জামালপুর, রংপুর, বিশেষ জজ কুমিল্লা, নোয়াখালী, সদস্য (বিচার ) (জেলা জজ) কর আপীলাত ট্রাইব্যুনাল ঢাাকা, সদস্য (জেলা জজ ) প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনাল বরিশাল, পরিচালক (জেলাজজ) বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউট ঢাকা, বিচারক (জেলা জজ) দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল রাজশাহী, চেয়ারম্যান (জেলা জজ) ১ম শ্রম আদালত চট্টগ্রাম, চেয়ারম্যান (জেলা জজ ) ২য় শ্রম আদালত ঢাকা ও সদস্য (জেলা জজ) প্রশাসনিক ট্রাইব্যুনাল বগুড়া। এ  প্রসঙ্গে আইন মন্ত্রণালয়ের একজন দায়িত্বশীল কর্মকর্তা জানান, ৭৭ জন কর্মকর্তার মধ্যে ২০১৬ সালের ২৯ আগস্ট জেলা ও দায়রা জজ সমপর্যায়ে ১২ জন, ৩ অক্টোবর ৩ জন, ১৯ জুন সিনিয়র সহকারী সচিব আইন ও বিচার বিভাগ ৮ জন, ৩০ আগস্ট যুগ্ম জেলা ও দায়রা জজ সমপর্যায়ে ২ জন, ২৪ আগস্ট একই পদে ১ জন, ২৪ জুলাই ৪ জন, ১১ জুলাই ২ জন, ১৯ জুন ৪৩ জন এবং ১৯ জুন আরো ২ জনের তালিকা সুপ্রিমকোর্টে পাঠানো হয়েছে।