শিবগঞ্জে দায়িত্ব পালনকালে হামলার শিকার সাংবাদিক তারেক

30

চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জে দায়িত্ব পালনকালে হামলার শিকার হয়েছেন মোহনা টেলিভিশনের চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রতিনিধি তারেক রহমান। সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে শিবগঞ্জ উপজেলা পরিষদ চত্বরে এ ঘটনা ঘটে। পরে স্থানীয় সাংবাদিকদের সহায়তায় তারেক রহমান শিবগঞ্জ স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নেন।
সাংবাদিক তারেক রহমান জানান, শিবগঞ্জ উপজেলার পাঁকা ইউনিয়নের পদ্মা নদীর ফেরিঘাটের টোল কমানোর দাবিতে ভুক্তভোগীরা উপজেলা পরিষদ চত্বরে মানববন্ধন কর্মসূচির আয়োজন করে। এর এক পর্যায়ে মানববন্ধনকারী ও স্থানীয় সংসদ সদস্যের সমর্থকদের মধ্যে উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। মানববন্ধনের বিরোধীতাকারীরা ধেয়ে আসলে মানববন্ধন প- হয়ে যায়। এ সময় সংবাদ ও ছবি ধারণ করতে গিয়ে হামলার শিকার হন তিনি। তিনি আরও জানান, তার ক্যামেরায় ছবি ধারণ করার সময় তাকে মারধর ও ক্যামেরা ছিনিয়ে নেয়া হয়। পরে সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল ক্যামেরাটি উদ্ধার করে দেন। এ ঘটনার জন্য স্থানীয় সংসদ সদস্যের সমর্থকদের দায়ি করেন আহত সাংবাদিক তারেক রহমান।
এ বিষয়ে সংসদ সদস্য ডা. সামিল উদ্দিন আহমেদ শিমুল বলেন, আমার বিরুদ্ধে আনিত অভিযোগ সম্পূর্ণ মিথ্যা ও ভিত্তিহীন। মানববন্ধনের ব্যানারে আমার নাম ব্যবহার করা হয়েছে, যা উদ্দেশ্য প্রণোদিত। তিনি আরও বলেন, টোল কমানোর মালিক আমি নই, অথচ রাজনৈতিক স্বার্থ চরিতার্থ করার জন্য একটি মহল তার নামে অসত্য এবং বিভ্রান্তিমূলকভাবে নাম ব্যবহার ও আমাকে হেয় করার জন্য এমন কর্মসূচির আয়োজন করেছে। সাংবাদিক তারেক রহমানের উপর হামলার বিষয়ে তিনি জানান, তিনি বিষয়টি আঁচ করতে পেরে দ্রুত তাকে উদ্ধার করে ইউএনও এর কার্যালয়ে নিয়ে আসেন এবং তার হারানো ক্যামেরা উদ্ধার করে তার হাতে ফিরিয়ে দেন।
এদিকে সাংবাদিক তারেক রহমানের উপর হামলার ঘটনায় সিটি প্রেসক্লাব, চাঁপাইনবাবগঞ্জের সভাপতি সাজেদুল সাজু ও চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক রফিকুল আলম তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন।