সংসদীয় স্থায়ী কমিটিতে প্রস্তাব উত্থাপন এমপি জেসির : নাচোলের বাসুগ্রামে প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপনের সুপারিশ

42

চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোল উপজেলার নেজামপুর ইউনিয়নের ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী অধ্যুষিত বাসুগ্রাম। এর আশপাশে রয়েছে আরো ৫টি গ্রাম- ধরইল দিঘীপাড়া, ধরইল শ্যামপুর, গোপীনাথাপুর, জমিনকমিন ও কার্তিকপুর। এ গ্রামগুলোও ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠী অধ্যুষিত। গ্রামগুলোর অবস্থান প্রায় ৭ কিলোমিটারের মধ্যে। ৬টি গ্রামে সবমিলিয়ে দুই শতাধিক পরিবারের বসবাস। গ্রামগুলোতে যোগাযোগের জন্য নেই কোনো পাকা সড়ক; নেই কোনো প্রাথমিক বিদ্যালয়ও। কয়েক মাস আগে বাসুগ্রামে প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপনের দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত আবেদনও দিয়েছিল স্থানীয়রা।
বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে আমলে নেন জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত আসনের সদস্য ফেরদৌসী ইসলাম জেসি। বুধবার প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় বিষয়টি উত্থাপনও করেন তিনি।
সংসদীয় কমিটি বিষয়টিকে গুরুত্ব দিয়ে নাচোল উপজেলার বাসুগ্রামের আশপাশে সর্বনিম্ন ৬ দশমিক ৫ কিলোমিটারের মধ্যে কোনো প্রাথমিক বিদ্যালয় না থাকায় অগ্রাধিকার ভিত্তিতে পরবর্তী “এক হাজার প্রাথমিক বিদ্যালয় নির্মাণ প্রকল্প”-এ অন্তর্ভুক্তি এবং একইভাবে যেখানে সর্বনি¤œ ২ কিলোমিটারের মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয় নেই সেখানেও অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রাথমিক বিদ্যালয় নির্মাণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করে।
এ বিষয়ে ফেরদৌসী ইসলাম জেসির সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি গৌড় বাংলাকে বলেন, “গত ১৪ নভেম্বর আমি নাচোল উপজেলার নেজামপুর ইউনিয়নের বাসুগ্রামে এক অনুষ্ঠানে যোগ দিয়েছিলাম। সেদিন স্থানীয়রা ওই গ্রামে একটি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপনের দাবি তুলে ধরেন।” এমপি জেসি আরো বলেন, আশপাশে সাড়ে ৬ কিলোমিটারের মধ্যে কোনো প্রাথমিক বিদ্যালয় না থাকায় বিষয়টিকে গুরুত্ব দেই এবং এ বিষয়ে সর্বোচ্চ চেষ্টা করব বলে তাদের আশ্বস্ত করি। তিনি বলেন, বুধবার বিষয়টি আমি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভায় উত্থাপন করি। কমিটি এটির গুরুত্ব বিবেচনা করে সেখানে প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপনসহ একইভাবে যেখানে সর্বনি¤œ ২ কিলোমিটারের মধ্যে প্রাথমিক বিদ্যালয় নেই সেখানেও অগ্রাধিকার ভিত্তিতে প্রাথমিক বিদ্যালয় নির্মাণের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের সুপারিশ করে।
সংসদ ভবনে অনুষ্ঠিত সভায় সভাপতিত্ব করেন কমিটির সভাপতি মোস্তাফিজুর রহমান। সভায় কমিটির অন্য সদস্য প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মো. জাকির হোসেন, মেহের আফরোজ, আলী আজম মো. নজরুল ইসলাম বাবু এবং কাজী মনিরুল ইসলাম অংশগ্রহণ করেন। এছাড়া প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব, বিভিন্ন দপ্তর সংস্থার প্রধানসহ মন্ত্রণালয় এবং সংসদ সচিবালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
সভায় এছাড়াও বাধ্যতামূলক প্রাথমিক শিক্ষা বাস্তবায়ন পরিবীক্ষণ ইউনিটের কার্যক্রম বাস্তবায়ন অগ্রগতি পর্যালোচনা করা হয়। বিভিন্ন নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন অগ্রগতি, জাতীয় প্রাথমিক শিক্ষা একাডেমি (নেপ)’র পরিচালিত প্রশিক্ষণ সম্পর্কে আলোচনা করা হয়। পূর্ববর্তী বদলি নীতিমালা বাতিল বা সংস্কার কেন প্রয়োজন সে বিষয়ে মন্ত্রণালয়কে কমিটির নিকট বিস্তারিত ব্যাখ্যা প্রদানের সুপারিশ করা হয়।
সভায় ‘ঢাকা মহানগরী ও পূর্বাচলে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপন ও অবকাঠামো উন্নয়নসহ দৃষ্টিনন্দনকরণ’ প্রকল্পের মোট ৩৫৬টি স্কুলের মধ্যে প্রাথমিকভাবে ১৬০টি স্কুলের দৃষ্টিনন্দনকরণের নকশা উপস্থাপন করা হয়। এছাড়া বৈঠকে মহাপরিচালকের অফিস দৃষ্টিনন্দনকরণের সুপারিশ করা হয়।
বই বিতরণ কার্যক্রমে অংশগ্রহণ করা দুজন শিক্ষকের মৃত্যুতে কমিটির পক্ষ থেকে শোক জ্ঞাপন করা হয়। উপানুষ্ঠানিক শিক্ষা কার্যক্রম নিয়ে আগামী বৈঠকে আলোচনার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।