২০২০ সালে অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র ও মাদকদ্রব্য উদ্ধার এবং চোরাচালান প্রতিরোধে পুরস্কৃত চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পুলিশ

8

২০২০ সালে কিছু প্রাপ্তিও ছিল। এর মধ্যে উল্লেখযোগ্য হলো অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র ও মাদকদ্রব্য উদ্ধার এবং চোরাচালান প্রতিরোধে বিশেষ অবদান রাখায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পুলিশের পুরস্কার প্রাপ্তি। পুলিশ সপ্তাহ-২০২০ উপলক্ষে এ পুরস্কার প্রদান করা হয়।
পুলিশ সপ্তাহ-২০২০ উপলক্ষে বাংলাদেশ পুলিশের তৎকালীন ইন্সপেক্টর জেনারেল ড. মোহাম্মদ জাবেদ পাটোয়ারী বিপিএম (বার) চাঁপাইনবাবগঞ্জ পুলিশ সুপার এএইচএম আবদুর রকিবের হাতে এ পুরস্কার তুলে দেন।
উল্লেখ্য, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পুলিশ মাদকদ্রব্য উদ্ধার অভিযানে দ্বিতীয়, চোরাচালান মালামাল উদ্ধার অভিযানে প্রথম এবং অবৈধ আগ্নেয়াস্ত্র উদ্ধার অভিযানে প্রথম হয়েছিল।
২০২০ সনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পুলিশের উল্লেখযোগ্য আরো কিছু সাফল্য : ১। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার সড়ক ও মহাসড়কে নসিমন ও ভটভটি নিয়ন্ত্রণ করায় নভেম্বর ডিসেম্বর মাসে মাত্র ২ জন সড়ক দুর্ঘটনায় মারা যায়। যেখানে আগের মাস গুলোতো মৃত্যুর সংখ্যা প্রতি মাসে গড়ে ১০ জন, ২। ২০২০ সনে মাদক নির্মূলে জেলা পুলিশ উল্লেখযোগ্য সাফল্য অর্জন করে। চার কেজি ৬০০ গ্রাম হেরোইন, ১৫ হাজার ৭১৪ বোতল ফেন্সিডিল,৪৭ হাজার ৬২৯ পিস ইয়াবা, ৯০ কেজি গাঁজাসহ মাদক মামলায় মোট ১০৬৪ জন আসামী আটক করা হয়। ৩। বিট পুলিশিং কার্যক্রম বেগবান করার মাধ্যমে জেলার আইন-শৃঙ্খলার অনেক উন্নতি হয়েছে। গত ২০১৯ সনে পাঁচ থানায় নিয়মিত মামলা হয়েছিল ২ হাজার ৩৬০ টি, সেখানে ২০২০ সনে মামলা হয়েছে ২ হাজার ১০২ টি। গ্রেপ্তারি পরোয়ানামূলে সর্বমোট ৫ হাজার ৬০৬ জন আসামী আটক করা হয়। গত বছরের চেয়ে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা কমেছে ১৫০০ টি, ৪। করোনাকালীন সারা বাংলাদেশের ন্যায় চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা পুলিশ ছিল সর্বোচ্চ তৎপর। চেকপোস্ট কোয়ারান্টিন এবং অন্যান্য তৎপরতার ফলে সারা বাংলাদেশের মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জের করোনা আক্রান্তের পরিমান ছিল সর্বনিম্ন পর্যায়ে। করোনা পরিস্থিতি সৃষ্টির পর যখন দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে এই জেলার মানুষ ফিরে আসছিল তখন জেলার পুলিশ সদস্যরা সারাত জেগে আগত লোকজনকে করোনা স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করে। পুলিশ সুপার এএইচএম আবদুর রকিবের নেতৃত্বে তারা বাড়িবাড়ি গিয়ে খাদ্য সামগ্রি পৌঁছে দেন পুলিশ সদস্যরা। এসম অনেকই করোননায় আক্রান্ত হন এবং পরে তারা সুস্থতা লাভ করেন।
(৫) চাঁপাইনবাবগঞ্জের চরবাগডাঙ্গা এলাকায় ছয় বছরের শিশু ধর্ষণ ও হত্যা মামলা সহ সদর, শিবগঞ্জ, নাচোল, ভোলাহাট ও গোমস্তাপুরের একাধিক আলোচিত হত্যা মামলার রহস্য সফলতার সঙ্গে জেলা পুলিশ উৎঘাটন করে।