সরকার কারিগরি ও প্রযুক্তি শিক্ষার ওপর সর্বাধিক গুরুত্ব দিয়েছে : অতিরিক্ত সচিব মনিরুজ্জামান

23

কারিগরি ও মাদরাসা শিক্ষা বিভাগ ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের (প্রশাসন ও উন্নয়ন শাখার) অতিরিক্ত সচিব মো. মনিরুজ্জামান বলেছেন, সরকার ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশকে উন্নত রাষ্ট্রে পরিণত করার লক্ষে এবং চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় মুজিববর্ষে কারিগরি ও প্রযুক্তি শিক্ষার ওপর সর্বাধিক গুরুত্বারোপ করেছে। এ লক্ষে ২০২০ সাল নাগাদ কারিগরি শিক্ষায় এনরোলমেন্ট হার ২০ শতাংশ ও ২০৩০ সালের মধ্যে ৩০ শতাংশ এবং ২০৪১ সাল নাগাদ ৫০ শতাংশে উন্নীত করার পরিকল্পনা গ্রহণ করা হয়েছে। এজন্য সরকার কারিগরি শিক্ষায় অধিক গুরুত্ব দিয়েছেন।
শুক্রবার চাঁপাইনবাবগঞ্জের নাচোলে সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজে ২০২১ শিক্ষাবর্ষে ষষ্ঠ ও নবম শ্রেণিতে ছাত্র-ছাত্রী ভর্তি কার্যক্রম অবহিতকরণ ও উদ্বুদ্ধকরণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন। বেলা ১১ টায় উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।
উপজেলা নির্বাহী অফিসার সাবিহা সুলতানার সভাপতিত্বে অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন- কারিগরি শিক্ষা অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক প্রকৌশলী এ কে এম ফেরদৌস খান, চাঁপাইনবাবগঞ্জ পলিটেকনিক ইনস্টিটিউটের অধ্যক্ষ প্রকৌশলী হুমায়ুন কবির খান, শিক্ষা অধিদপ্তরের নির্বাহী প্রকৌশলী রেজাউল ইসলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ তোফাজ্জল হক, নাচোল সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজের অধ্যক্ষ মোবারক হোসেন, নাচোল সরকারি কলেজের অধ্যক্ষ হাফিজুর রহমান, মহিলা ডিগ্রি কলেজের অধ্যক্ষ ওবাইদুর রহমান, নাচোল পৌর মেয়র আব্দুর রশিদ খান, বেগম মহসিন ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ মাওলানা ইসাহাক আলী, নাচোল উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার আ.ফ.ম হাসান, নাচোল থানার অফিসার ইনচার্জ সেলিম রেজা। এছাড়া বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানগণ উপস্থিত ছিলেন।
অনুষ্ঠানে জানানো হয়, দেশের ১০০টি উপজেলায় একটি করে সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ স্থাপন শীর্ষক প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হচ্ছে। এই ১০০টি টিএসসির মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার নাচোল উপজেলার পৌর এলাকার ৯নং ওয়ার্ড কন্যানগর মহল্লায় ১ দশমিক ৫ একর জমির ওপর একটি ৫ তলা একাডেমিক ভবন এবং একটি ৪ তলা প্রশাসনিক ভবন ও একটি একতলা সার্ভিস এরিয়া ভবন নির্মাণ করা হয়েছে। পাঁচতলা একাডেমিক ভবনের প্রথম ও দ্বিতীয় তলায় রয়েছে ৫টি করে ১০টি ট্রেড ল্যাব এবং তৃতীয়, চতুর্থ ও পঞ্চম তলায় ১৪টি শ্রেণিকক্ষ ও একটি ড্রয়িং ল্যাব।
নাচোলে কারিগরি শিক্ষার হারকে সামনে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য উপস্থিত সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের প্রধানগণসহ সুধীবৃন্দের কাছে সব ধরনের সহযোগিতা কামনা করা হয়।
উল্লেখ্য, প্রায় ১৭ কোটি টাকা ব্যয়ে নাচোল সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ ভবনের নির্মাণ কাজ শুরু হয় ২০১৮ সালের ৪ এপ্রিল। কাজটি যৌথভাবে করছে কোহিনুর এন্টারপ্রাইজ ও রিথিন এন্টারপ্রাইজ অ্যান্ড আরসি প্রাইভেট লিমিটেড। কার্যাদেশের বর্ধিত সময় অনুযায়ী ২০২১ সালের ৩ মার্চ নির্মাণকাজ সম্পন্ন হবে বলে আশা করা হচ্ছে।
অধ্যক্ষ মোবারক হোসেন জানান, ২০২১ শিক্ষাবর্ষে ষষ্ঠ শ্রেণিতে ১২০টি এবং নবম শ্রেণিতে ৬০টি আসনে ওয়েল্ডিং অ্যান্ড ফেব্রিকেশন ট্রেডে শিক্ষার্থী ভর্তি করা হবে।
পরে প্রধান অতিথি নাচোল সরকারি টেকনিক্যাল স্কুল অ্যান্ড কলেজ এবং কৃষি ডিপ্লোমা কলেজ পরিদর্শন করেন।