বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট-২০২০ শুরু,অনুদান পাবে দেশী-বিদেশী স্টার্টআপ

52

দেশী-বিদেশী স্টার্টআপগুলোকে অনুদান দেয়ার লক্ষ্য নিয়ে প্রথমবারের মতো শুরু হলো ‘বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট-২০২০’। এই আয়োজনের মধ্য দিয়ে একটি স্টার্টআপকে ১ লাখ মার্কিন ডলার এবং আরো অন্তত ৩৬টি স্টার্টআপকে ১০ লাখ টাকা পর্যন্ত অনুদান দেয়া হবে।
বুধবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে অবস্থিত আইসিটি টাওয়ারে এক সংবাদ সম্মেলনের মধ্য দিয়ে বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট বা বিগ সম্পর্কে বিস্তারিত জানানো হয়।
এতে জানানো হয়, শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবর্ষ উপলক্ষে ১০০ স্টার্টআপকে অনুদান দেয়ার কার্যক্রমের অংশ হিসেবে এই মেগা ইভেন্ট আয়োজন করা হয়েছে। বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট প্রতিযোগিতায় অংশ নিতে আগ্রহী তথ্যপ্রযুক্তিভিত্তিক উদ্যোক্তারা িি.িনরম.মড়া.নফ এই ওয়েবসাইটে গিয়ে নিবন্ধন করতে পারবেন। দেশীয় উদ্যোক্তারা আগামী ২৫ ডিসেম্বর এবং বিদেশী উদ্যোক্তারা ২৫ জানুয়ারি ২০২১ পর্যন্ত নিবন্ধন করতে পারবেন। নিবন্ধনের প্রাপ্ত আবেদন থেকে প্রাথমিকভাবে ২০০ স্টার্টআপকে বাছাই করা হবে। সেখান থেকে ৬৫টি দেশীয় স্টার্টআপকে নিয়ে বুটক্যাম্প এবং টিভি রিয়েলিটি শো’র আয়োজন করা হবে। সেখান থেকে সর্বশেষ ২৬টি স্টার্টআপকে ১০ লাখ টাকা করে অনুদানের জন্য নির্বাচিত করা হবে।
অন্যদিকে আন্তর্জাতিক রোড শো’র মাধ্যমে চূড়ান্তভাবে ১০টি স্টার্টআপকে বাছাই করে অনুদান দেয়া হবে। একইসঙ্গে এবারের আসর থেকে একটি ইনোভেশন আইডিয়া বা স্টার্টআপকে ১ লাখ মার্কিন ডলার পর্যন্ত অনুদান দেয়া হবে। আগামী বছরের মার্চ মাসে জমকালো আয়োজনের মাধ্যমে চূড়ান্ত বিজয়ীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করার পরিকল্পনা রয়েছে।
সংবাদ সম্মেলনে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান সবসময় বড় স্বপ্ন দেখেছেন, বড় উদ্যোগ নিয়েছেন। লক্ষ্যে পৌঁছতে বড় বড় ত্যাগও স্বীকার করেছেন। আজকের এই আয়োজন বঙ্গবন্ধু শতবর্ষকে স্মরণ করে রাখতে করা হয়েছে।
অনুষ্ঠানে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক পার্থপ্রতিম দেব, আইসিটি বিভাগের সিনিয়র সচিব এন এম জিয়াউল আলম বক্তব্য দেন।