আওয়ামী লীগে কোনো গ্রুপিং নেই : আব্দুল ওদুদ

49

চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাবেক এমপি আব্দুল ওদুদ বলেছেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগে কোনো গ্রুপিং নেই। চাঁপাইনবাবগঞ্জেও কোনো গ্রুপিং নেই। তবে অতি উৎসাহী কিছু লোক মনে করে আমার ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতির মধ্যে গ্রুপিং রয়েছে। এটি তাদের ভুল ধারণা। আমরা দলীয় যে কোনো সিদ্ধান্ত এক সঙ্গে বসেই গ্রহণ করি। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি অসুস্থ মানুষ, সব সময় সকল সভা সমাবেশে আসতে পারেন না। আসলেও বেশিক্ষণ সময় থাকতে পারেন না। এই দুর্বলতাকে কাজে লাগিয়ে কিছু লোক ব্যক্তিগত চাওয়া পাওয়া নিয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতিকে এবং আমাকে বিভ্রান্ত করার চেষ্টা করে। উস্কে দেয়ার অপচেষ্টা করে। তবে আমরা এ ব্যাপারে খুবই সচেতন। কোনো শক্তিই আমাদের মধ্যে বিভেদ সৃষ্টি করতে পারবে না।
আজ সোমবার বিভিন্ন দলের নেতা-কর্মীদের আওয়ামী লীগে যোগদান অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তার বক্তব্যে তিনি কথা গুলো বলেন। বাংলাদেশ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জাসদ) চাঁপইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সাবেক সাধারণ সম্পাদক হাবিবুর রহমান হাবিবের নেতৃত্বে দলটির অর্ধশত নেতা-কর্মীরা আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। সকালে শহী মনিমুল হক সড়কে দলীয় কার্যালয়ে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মইনুদ্দীন মন্ডল ও সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওদুদ ফুল দিয়ে তাদেরকে বরণ করেন। জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মইনুদ্দীন মন্ডল যোগদানকারীদের উদ্দেশ্যে বলেন-আরো আগে যোগদান করা উচিত ছিল। অনুষ্ঠানে তিনি সভাপতিত্ব করেন।
জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওদুদ আরো বলেন-চাঁপাইনবাবগঞ্জে সদর আসনে আমি সংসদ সদস্য থাকাকালীন কোনো চাঁদাবাজী বা টেন্ডারবাজী হয়নি। কোনো সন্ত্রাস ছিলনা। আমি আশা করব আজ যারা জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের আদর্শে বিশ্বাস করে আওয়ামী লীগে যোগদান করলেন তারা এইসব কাজ থেকে বিরত থাকবেন। মনে রাখবেন আওয়ামী লীগে কোনো চাঁদাবাজ, টেন্ডারবাজ, বোমাবাজের স্থান নেই। আশা করি আপনারা এই পরীক্ষায় পাস করবেন।
অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকট নজরুল ইসলাম, পৌর আওয়াম লীগের সভাপতি শরিফুল আলম ও সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকটে মিজানুর রহমান এবং যোগদানকারীদের মধ্যে হাবিবুর রহমান হাবিব। এ-সময় উপস্থিত ছিলেন পৌর আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি মোখলেসুর রহমান, জেলা পরিষদ সদস্য ও আ.লীগ নেতা আলহাজ্ব রফিকুল ইসলাম, জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাংগঠনিক সম্পাদক গোলাম শাহনেয়াজ অপু, সাবেক ছাত্রলীগ নেতা আবু সুফিয়ান, তাঁতী লাগে সদস্য সচিক আব্দুর রকিসহ আওয়ামী লীগ এবং এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের বিভিন্ন স্তরের নেতাকর্মীরা।