নভেম্বরের শেষে যুক্তরাষ্ট্রে দুটি ভ্যাকসিন অনুমোদনের সম্ভাবনা

2

যুক্তরাষ্ট্রে নভেম্বরের শেষ নাগাদ দুটি মার্কিন কোম্পানি কোভিড-১৯’র ভ্যাকসিনের জরুরি অনুমোদনের আবেদন করতে পারে। শুক্রবার ফাইজার কোম্পানি বলেছে, সুরক্ষা তথ্য পাওয়ার পর নভেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহ নাগাদ তারা ভ্যাকসিনের পরবর্তী পদক্ষেপ নিয়ে এগিয়ে যাবে বলে আশা করছে।
৩ নভেম্বর দেশটির প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের অনেক পরে জরুরি অনুমোদনের পদক্ষেপ চাচ্ছে ভ্যাকসিন কোম্পানি। এদিকে ফাইজারের এই ঘোষণার অর্থ, যুক্তরাষ্ট্র চলতি বছরের শেষ নাগাদ দুটি ভ্যাকসিন পেতে যাচ্ছে। কারণ ম্যাসাচুসেটসভিত্তিক বায়োটেক ফার্ম মডার্না আগামী ২৫ নভেম্বর ভ্যাকসিন অনুমোদনের আবেদন করবে।
ফাইজার কোম্পানির চেয়ারম্যান ও সিইও আলবার্ট বাউরলা এক খোলা চিঠিতে বলেছেন, সুরক্ষা তথ্য পাওয়ার পর ফাইজার নভেম্বরের তৃতীয় সপ্তাহ নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রে ব্যবহারের জন্য ভ্যাকসিনের জরুরি অনুমোদনের আবেদন করবে।
তবে বিশেষজ্ঞরা সতর্ক করে বলছেন, ভ্যাকসিন অনুমোদিত হলেও সবার কাছে পৌঁছাতে বেশ কয়েক মাস সময় লাগবে। এছাড়া ভ্যাকসিনের শতভাগ কার্যকারিতা নিয়েও তারা তাদের সন্দেহ প্রকাশ করেছেন। এমনকি তারা বলছেন, সংক্রমণ রোধে মাস্ক এবং সামাজিক দূরত্বের বিকল্পও ভ্যাকসিন হতে পারে না।
মায়ো ক্লিনিকের সংক্রমণ বিষয়ক ডা. প্রফেসর প্রিয়া শম্পাথ কুমার বলেন, ভ্যাকসিন কোনো ম্যাজিক বুলেট নয়। তাই আমাদের সতর্ক থাকতে হবে। ফাইজার ও মডার্না দুটোই মার্কিন সরকারের অর্থায়নে তাদের ভ্যাকসিনের কার্যক্রম চালাচ্ছে। উভয় কোম্পানি জুলাই মাসের শেষ নাগাদ তাদের তৃতীয় ধাপের ক্লিনিক্যাল ট্রায়ালের কাজ শুরু করে। তাদের লক্ষ্য চলতি বছরের শেষ নাগাদ যুক্তরাষ্ট্রে কয়েক মিলিয়ন ডোজ করোনা ভ্যাকসিন সরবরাহ করা।