চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রণোদনার দাবিতে হাটবাজার ইজারাদারদের সংবাদ সম্মেলন

19

চাঁপাইনবাবগঞ্জে করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় ক্ষতিগ্রস্ত হাটবাজার ইজারাদাররা সরকারিভাবে প্রণোদনার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন। আজ মঙ্গলবার বেলা ১১টায় শহরের আলাউদ্দিন চাইনিজ ও ফাস্টফুডের সম্মেলন কক্ষে এই সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার বিভিন্ন হাটবাজারের ইজারাদারগণের ব্যানারে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে ইজারাদারদের পক্ষে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন নাচোল উপজেলার সোনাইচন্ডি হাটের ইজারাদার আবুল খায়ের সুমন।
লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন- বর্তমান বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোধে দেশের সরকারি-বেসরকারি অফিস আদালত, স্কুল-কলেজ, হাটবাজার বন্ধ রাখা হয়। আমরা হাটবাজার ইজারাদাররা সরকারি আদেশ মেনে অধিকাংশ সাপ্তাহিক হাট বন্ধ রাখি। গত মার্চ থেকে প্রায় চার মাস সাপ্তাহিক হাটবাজার বসাতে না পারায় প্রচুর আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছি। শুধু তাই নয় ইজারার নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে আমাদের ব্যবসার মূলধন ফিরে পাওয়া নিয়েও শঙ্কায় রয়েছি। তিনি আরো বলেন- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সারাদেশে ব্যবসায়ীসহ বিভিন্ন সেক্টরে করোনার ক্ষতি পুষিয়ে নিতে প্রণোদনা প্রদান করছেন। কিন্তু এ পর্যন্ত চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার বিভিন্ন হাটের ইজারাদাররা সরকারি প্রণোদনা পায়নি।
ক্ষতিগ্রস্ত হাটবাজার ইজারাদারদের প্রণোদনা প্রদানসহ সরকারি হাটবাজার ব্যবস্থাপনা ও ইজারা নীতিমালা অনুযায়ী বন্ধকালীন সময়ের জন্য আনুপাতিক হারে ইজারামূল্য ফেরতের দাবি জানানো হয় সংবাদ সম্মেলনে।
সংবাদ সম্মেলনে ইজারাদারদের মধ্যে আরো উপস্থিত ছিলেন, কানসাট হাটের আসাদুজ্জামান ভোদন, চকর্কীতি হাটের আনোয়ার হোসেন আনু মিয়া, রানীহাটি হাটের মোস্তাকুল ইসলাম পিন্টু, মহিপুর হাটের মহসিন রেজা বাবু, মনাকষা হাটের মোজাম্মেল হক, কানসাট বাগীতলা হাটের জুয়েল রানা, আড়গাড়া পশুহাটের মো. আব্দুল জাব্বার, রহনপুর পশুহাটের মো. আলী হোসেন, শিবগঞ্জ তক্তিপুর হাটের মো. বাহারুল ইসলাম বেনজির, নাচোল পশুহাটের রামিল হাসান সুইট।