নদীর পানি কমলে পদ্মা সেতুতে বসানো হবে স্প্যান

36

নদীর পানি কমলেই পদ্মা সেতুর স্প্যান বসানোর কাজ শুরু করা হবে। পানির স্তর বেশি থাকায় স্প্যান বসানোর কাজে ব্যবহৃত ক্রেন ব্যবহার করা যায় না। সে কারণে ৭টি স্প্যান প্রস্তুত থাকলেও পিয়ারে তা বসানো সম্ভব হচ্ছে না। নদী ভাঙন বা অন্য কোনও কারণে পদ্মা সেতুর কাজ থেমে নেই বলে জানিয়েছেন সেতুর নির্বাহী প্রকৌশলী দেওয়ান আবদুল কাদের। তিনি জানান, স্প্যান বসানোর জন্য নদীতে পানির স্তর থাকতে হবে ৪. ৮০ মিটার। কিন্তু বর্তমানে আছে ৬.১৭ মিটার। স্প্যান বসাতে হলে ক্রেনকে পিয়ারের কাছে বসাতে হবে।
ক্রেন বসানোর জন্য পানির স্তর ৪.৮০ মিটারের নিচে থাকতে হবে। কাজেই নদীর পানির স্তর যখন এমন হবে তখনই স্প্যান বসানো হবে। সেটা সেপ্টেম্বর মাস হোক বা অক্টোবরে। স্প্যান বসানোর কাজ ছাড়া সেতুর অন্য কোনও কাজ আর থেমে নেই। মূল সেতুর ৪১টি স্প্যানের মধ্যে ৩১টি স্প্যান বসানো হয়েছে। বাকি আছে মাওয়া প্রান্তের ১০টি স্প্যান। সেগুলোর মধ্যে ৭ টি স্প্যান তৈরির কাজ সম্পন্ন হয়েছে এবং ৩টি স্প্যান তৈরির কাজ চলছে। তিনি আরো জানান, আগামী ডিসেম্বরের মধ্যে সেতুর সব স্প্যান বসানোর কাজ শেষ হবে বলে আশা করা যায়। আর যেভাবে কাজ এগিয়ে যাচ্ছে তাতে আগামী বছর সেতু যান চলাচলের জন্য উদ্বোধন করা সম্ভব হবে। এদিকে, সোশ্যাল মিডিয়ায় পদ্মা সেতুর ছবি, ভিডিও ও তথ্যাদি প্রকাশে প্রকৌশলীদের নিষেধাজ্ঞা দিয়েছেন প্রকল্প পরিচালক শফিকুল ইসলাম। গত শনিবার সকালে এ-সংক্রান্ত একটি চিঠি সেতু প্রকল্পের প্রকৌশলীদের কাছে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে দেওয়ান আবদুল কাদের বলেন, অনেক প্রকৌশলী সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে তথ্য প্রকাশ করেন। অনেক সময় সেসব তথ্যে ভুল থাকে। তাই এই নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়েছে। তবে, সংবাদপত্র বা ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় সেতু নিয়ে সংবাদ প্রকাশে কোনও বাধা নেই।