চাঁপাইনবাবগঞ্জে আবারো কাঁচামরিচের কেজি ২০০ টাকা

48

বিপাশা রবিদাস : চাঁপাইনবাবগঞ্জের নিউমার্কেট কাঁচাবাজারে বৃহস্পতিবার কাঁচামরিচ ১৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হলেও গতকাল শুক্রবার বিক্রি হয়েছে ২০০ টাকা। এছাড়া দেশী মুরগির দাম কমে বিক্রি হচ্ছে ৩০০ টাকা কেজি দরে। অপরদিকে, মুদিবাজারে বেড়েছে ডিম, পেঁয়াজ ও রসুনের দাম। সেই সাথে কেজিপ্রতি ৩০-৪০ টাকা বেড়েছে ছোট-বড় প্রায় সকল মাছের দাম।
নিউমার্কেট কাঁচাবাজারের সবজি বিক্রেতা আব্দুল রশিদ ও শহিদুল ইসলাম বলেন, গত সপ্তাহের তুলনায় সবজির দাম বাড়তির দিকে। শীতকালীন সবজি না ওঠা পর্যন্ত দাম বাড়তির দিকেই থাকবে বলে তাদের ধারণা।
তবে বাজারে কমেছে কেবল পেঁপের দাম। পেঁপে ২৫ টাকা থেকে কমে হয়েছে ২০ টাকা কেজি। আর কাঁচামরিচ ১৮০ থেকে বেড়ে ২০০ টাকা, পটল ৪০ থেকে বেড়ে ৪৫ টাকা, দেশী শশা ৫০ টাকা, বিদেশী শশা ৪০ টাকা, বেগুন ৬০ টাকা, করলা ৭০ টাকা, কাকরোল ৫০ টাকা, ঝিঙ্গাা ৪০ টাকা এবং কচু ৪০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আর কুমড়ার জালি প্রতিটি বিক্রি হচ্ছে ২০-৩০ টাকা।
এদিকে, মুদিবাজারে সাদিরুল ইসলাম ও ইয়ামিন বলেন, ডিম ৩০-৩২ থেকে থেকে বেড়ে হয়েছে ৩৪ টাকা হালি। এছাড়া বিদেশী পেঁয়াজ ২২ থেকে বেড়ে ২৮ টাকা, দেশী পেঁয়াজ ৪০-৪২ থেকে বেড়ে ৪৬ টাকা, বিদেশী রসুন ৬৫-৭০ থেকে বেড়ে ৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। এছাড়া অন্যান্য মুদিপণ্যের দাম স্থিতিশীল আছে। যেমন, আদা ১৬০ টাকা, চিনি ৫৪ থেকে ৫৬ টাকা, খোলা সয়াবিন ৮৮ টাকা, আটাশ চাল ৪৪-৪৬ টাকা, মিনিকেট চাল ৫০-৫২ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
ইলিশ মাছ বিক্রেতা শুকুউদ্দীন জানান, ইলিশ মাছের আমদানি কম থাকায় দাম এবটু বেশি। ১ কেজির ইলিশ ৯৫০, ১ কেজি ৩০০ গ্রামের ইলিশ ১১০০, ৫০০ গ্রামের ইলিশ ৬০০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
মাছ বিক্রেতা মুকুল রহমান, সাবের আলী ও আয়াত আলীর সাথে কথা হলে তারা বলেন, গত (বৃহস্পতিবার) রাতে পানি হওয়ার কারণে আজ (গতকাল) শুক্রবার বাজারে মাছের আমদানি কম এবং দাম গত সপ্তাহের তুলনায় কেজিতে ৩০-৪০ টাকা বেশি। দেড় থেকে দুই কেজি ওজনের কাতল ২৬০ টাকা কেজি, এক কেজি ওজনের রুই ২৫০ টাকা কেজি, ৮০০ গ্রামের মিরকা ২০০ টাকা কেজি, ছোট চিংড়ি ৬০০ টাকা কেজি, বাশট মাছ কেজিপ্রতি ৮০ টাকা বেড়ে ৪৮০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
মুরগি বিক্রেতা শরিফুল ও রুবেল বলেন, আমদানি বেশি থাকায় দেশী মুরগি কেজিপ্রতি ৩০ টাকা কমে হয়েছে ৩০০ টাকা কেজি, পাকিস্তানি মুরগি ২১০ টাকা কেজি, ব্রয়লার ১১০ টাকা কেজি, লেয়ার মুরগি ২৩০-২৩৫ টাকা কেজি, প্যারেন্স ২১০-২২০ টাকা কেজি এবং সোনালি ২১০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে।
বাজারে মাছ ক্রেতা তরিকুল আলম বলেন, ‘রুই মাছ নিলাম। দাম একটু বেশি মনে হচ্ছে।’ আরেক ক্রেতা আতিকুর রহমান নিশান বলেন, মাছের দাম মোটামুটি সহনীয় পর্যায়ে আছে এবং সবজির দামও খুব বেশি না। মুরগি ক্রেতা রেজাউল হক বলেন, মুরগির দাম স্বাভাবিক আছে।