বড় অংকের জরিমানার মুখোমুখি টুইটার!

11

ব্যবহারকারীদের ফোন নাম্বার এবং ই-মেইলের তথ্যের উপরে ভিত্তি করে বিজ্ঞাপন বাণিজ্যের অভিযোগে ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার জরিমানার মুখোমুখি হতে পারে টুইটার। খবর সিএনএনের। মার্কিন প্রশাসন টুইটারকে এই জরিমানা করতে পারে। গত ২৮ জুলাই ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহারের জন্য টুইটারকে দায়ী করে এক অভিযোগপত্র দিয়েছে ফেডারেল ট্রেড কমিশন। শুধু এই অভিযোগ পত্রের জন্যই ১৫০ থেকে ২৫০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার জরিমানা গুনতে হতে পারে টুইটারকে। টুইটার বলছে, ২০১৩ থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত বিজ্ঞাপনগুলোর কোটা পূরণে এই পন্থা অবলম্বন করা হয়েছিল। গত বছরের অক্টোবরের এক স্বীকারোক্তিতে টুইটার জানায়, “অসাবধানতাবশত” ব্যবহারকারীদের অ্যাকাউন্টের সুরক্ষায় ব্যবহৃত ব্যক্তিগত তথ্য ব্যবহার করে বিজ্ঞাপন প্রচার করা হয়েছি। মঙ্গলবার ফেডারেল ট্রেড কমিশনের পক্ষ থেকে জানান হয়, তারা টুইটারের বিরুদ্ধে তদন্ত চালিয়ে যাচ্ছে। এর আগে ব্যবহারকারীদের তথ্য বেহাতের অভিযোগে ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার জরিমানা দিয়ে ফেসবুকের সাথে সমঝোতায় এসেছিল টুইটার। যা ইতিহাসে এ পর্যন্ত রেকর্ড পরিমাণ অর্থ জরিমানা। প্রসঙ্গত, বছরের ২য় ত্রৈমাসিক সময়ে ৬৮৩ মিলিয়ন মার্কিন ডলার আয় করার কয়েকদিনের মাঝেই এই অভিযোগপত্র আসে টুইটারের কাছে। যা বারাক ওবামা, বিল গেটসসহ আরও খ্যাতি সম্পন্ন ব্যক্তির অ্যাকাউন্ট হ্যাকের ২ সপ্তাহের মধ্যে ঘটেছে।