ইউরোপার কোয়ার্টারে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড

28

করোনা ভাইরাসের প্রাদুর্ভাব শুরুর আগেই উয়েফা ইউরোপা লিগের শেষ ষোল’র প্রথম লেগে লাস্কে ৫-০ গোলে উড়িয়ে দিয়েছিল ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড। আর তাতেই কোয়ার্টারে এক পা দিয়ে রেখেছিল রেড ডেভিলরা। এরপর করোনার থাবায় বিপর্যস্ত গোটা বিশ্ব, থমকে গিয়েছিল সবই। অবশেষে ফুটবল মাঠে গড়ানোর পর শুরু হয়েছে ইউরোপা লিগের স্থগিত হয়ে থাকা মৌসুমের খেলাও। আর ওল্ড ট্রাফোর্ডে দ্বিতীয় লেগে লাস্ককে ২-১ গোলের ব্যবধানে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত ওলে গানার সোলশায়ারের দলের। ২০১৯/২০২০ মৌসুমের শেষভাগটা দুর্দান্ত কাটছে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেডের।

২০২০ সালের জানুয়ারিতে ট্রান্মেরের বিপক্ষের ম্যাচ থেকে শুরু করে লাস্কের বিপক্ষের ম্যাচ পর্যন্ত টানা ২৩টি ম্যাচের মধ্যে কেবল একটি ম্যাচেই হারের মুখ দেখেছে রেড ডেভিলরা। টানা ১৯ ম্যাচ অপরাজিত থাকার পর এফএ কাপের সেমিফাইনালে চেলসির বিপক্ষে হারে ভঙ্গ হয় এ যাত্রা। ঘরের মাঠ ওল্ড ট্রাফোর্ডে অস্ট্রিয়ান ক্লাব লাস্ককে আতিথ্য দেয় হ্যারি মাগুয়েররা। এর আগে লাস্কের মাঠেই মাতা, ড্যানিয়েল জেমস আর গ্রিনউডদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সে ৫-০ গোলের ব্যবধানে জয় পেয়েছিল রেড ডেভিলরা। আর তাই তো দ্বিতীয় লেগে কমপক্ষে ছয় গোলের ব্যবধানে জিতলেই কেবল কোয়ার্টারের টিকিট পেত লাস্ক। তবে তা বাস্তবিক পক্ষে অবাস্তবাই ছিল। আর ঘরের মাঠে এদিন জ¦লে ওঠে হুয়ান মাতা।

তার জোড়া অ্যাসিস্টে গোল করেন জেসে লিঙ্গার্ড এবং অ্যান্থনি মার্শিয়াল। আর তাতেই থিয়েটার অব ড্রিমসে নিশ্চিত হয় রেড ডেভিলদের ২-১ ব্যবধানের জয় এবং সেই সঙ্গে কোয়ার্টারের টিকিট। প্রথমার্ধে অবশ্য দু’দলের কেউই গোলের দেখা পায়নি। এর আগে রেড ডেভিল কোচ সোলশায়ার দলের প্রথম একাদশের নিয়মিত খেলোয়াড় ডেভিড ডি গিয়া, লিন্ডেলফ, ওয়ান বিসাকা, পল পগবা, ব্রুনো ফার্নান্দেজ, অ্যান্থনি মার্শিয়াল এবং মার্কোস রাশফোর্ডকে দলের বাইরে রেখেই একাদশ সাজান। তবে অপেক্ষাকৃত কম শক্তিশালী দল হওয়ায় এবং প্রথম লেগে ৫-০ গোলের ব্যবধানে এগিয়ে থাকার কারণেই দলের নিয়মিত খেলোয়াড়দের বিশ্রাম দেন সোলশায়ার।

ম্যাচের প্রথমার্ধ কিছুটা ম্যাড়ম্যাড়ে কাটলেও দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই এক গোল করে বসে সফরকারী লাস্ক। দ্বিতীয়ার্ধের ১০ মিনিটের মাথায় ফিলিপ ওয়েসিঙ্গারের গোলে ১-০’তে এগিয়ে যায় লাস্ক। এর মাত্র দুই মিনিট পর জেসে লিঙ্গার্ডের গোলে সমতায় ফেরে ইউনাইটেড। এই গোলের মাধ্যমে ২০১৮ সালের ডিসেম্বরের পর প্রথমবার টানা দুই ম্যাচে গোল পেলেন লিঙ্গার্ড। এরপর ম্যাচের ৮৪ মিনিটে ড্যানিয়েল জেমসের পরিবর্তে মাঠে নামেন অ্যান্থনি মার্শিয়াল। আর মাঠে নামার মাত্র চার মিনিট পরে হুয়ান মাতার দ্বিতীয় অ্যাসিস্টে বল জালে জড়ান মার্শিয়াল।

আর তাতেই নিশ্চিত রেড ডেভিলদের ২-১ ব্যবধানের জয়। সেই সঙ্গে নিশ্চিত কোয়ার্টার ফাইনালও। কোয়ার্টার ফাইনালে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড লড়বে এফসি কোবেনহভনের বিরুদ্ধে। এর আগে শেষ ষোল’র লড়াইয়ে কোভেনহভন ৩-০ গোলে ইস্তানবুল বাসাকসারকে হারিয়ে কোয়ার্টার ফাইনাল নিশ্চিত করে। আগামী মঙ্গলবার বাংলাদেশ সময় রাত একটায় কোয়ার্টার ফাইনালের ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল।