তাহলে কি বার্সেলোনা ছেড়ে দিচ্ছেন মেসি?

9

লিওনেল মেসিকে তার ক্যারিয়ারের শেষ পর্যন্ত ধরে রাখতে চায় বার্সেলোনা। সেই লক্ষ্যে সময়ের অন্যতম সেরা ফরোয়ার্ডের সঙ্গে চুক্তি নবায়নের আলোচনা শুরু করেছিল ক্লাবটি। স্প্যানিশ রেডিও কাদেনা সেরের দাবি, ওই আলোচনা মাঝপথে বন্ধ করে দিয়েছেন আর্জেন্টাইন তারকা। সবশেষ ২০১৭ সালে বার্সেলোনার সঙ্গে নতুন চুক্তি করেন মেসি। চুক্তিটির মেয়াদ ২০২০-২১ মৌসুমের শেষ পর্যন্ত। কাদেনা সেরের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মেসি ও তার বাবা হোর্হে ওই চুক্তি নবায়নের বিষয়ে আলোচনা শুরু করছিলেন। কিন্তু হঠাৎ করেই নাকি তাদের পক্ষ থেকে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, কাম্প নউয়ে আর থাকতে চান না মেসি। ওই প্রতিবেদনে আরও দাবি করা হয়েছে, সাম্প্রতিক সময়ের বেশ কিছু ঘটনায় বিরক্ত ও ক্ষুব্ধ মেসি। গত কয়েক মাসে গণমাধ্যমের খবরে তুলে ধরা হয়েছে যে ক্লাবের অনাকাক্সিক্ষত কিছু ঘটনার পেছনে মেসির হাত আছে; যেমন জানুয়ারিতে সাবেক কোচ এরনেস্তো ভালভেরদের ছাঁটাই। বর্তমানের দলের মান নিয়েও নাকি সন্তুষ্ট নন তিনি। আর সবশেষ বর্তমান কোচ কিকে সেতিয়েনের সঙ্গে মতভেদের খবর পরিষ্কারভাবেই সামনে এসেছে।রেডিওটির এমন খবরের প্রেক্ষিতে মেসি বা তার প্রতিনিধি কিংবা বার্সেলোনার পক্ষ থেকে কোনো মন্তব্য আসেনি। গত ২৪ জুন ৩৩ বছর পূর্ণ করা মেসি তিন দিন আগে মঙ্গলবার আতলেতিকো মাদ্রিদের বিপক্ষে ৭০০ গোলের মাইলফলক স্পর্শ করেন। অধিনায়কের বিশেষ প্রাপ্তির ম্যাচে ২-২ গোলে ড্র করলে শিরোপা লড়াইয়ে পিছিয়ে পড়ে বার্সেলোনা। গত বৃহস্পতিবার গেতাফেকে ১-০ গোলে হারিয়ে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের চেয়ে ৪ পয়েন্টে এগিয়ে গেছে রিয়াল মাদ্রিদ। ক্যারিয়ার জুড়ে স্বল্পভাষী হিসেবে পরিচিত মেসিকে গত বছর থেকে অন্য রূপে দেখা যাচ্ছে। ক্লাবের নানা সমস্যার বিষয়েও প্রকাশ্যে তাকে কথা বলতে দেখা গেছে। গত জানুয়ারিতে ক্লাবের স্পোর্টিং ডিরেক্টর এরিক আবিদাল দাবি করেন, ভালভেরদের সময় ফুটবলারদের অনেকে মাঠে শতভাগ দেননি। ইনস্টাগ্রামে তার এমন মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেন মেসি। পরিস্থিতি সামাল দিতে দুজনের সঙ্গে আলোচনায় বসতে হয়েছিল ক্লাব সভাপতি জোজেপ মারিয়া বার্তোমেউকে। আবার গত ফেব্রুয়ারিতে, মুন্দো দেপোর্তিভোকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে মেসি জানান, এবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ জেতার সামর্থ্য নেই বার্সেলোনার। এর আগেও অনেক সময় নানা কারণে মেসির ক্লাব ছাড়ার গুঞ্জন উঠেছে, যা শেষ পর্যন্ত বাস্তবের মুখ দেখেনি। জানুয়ারির ওই ঘটনাতেই যেমন উঠেছিল, তবে তা উড়িয়ে দিয়েছিলেন রেকর্ড ছয়বারের বর্ষসেরা ফুটবলার।