চাঁপাইনবাবগঞ্জে কৃষকদের উদ্বুদ্ধকরণে মাঠ দিবস

56

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার ঝিলিম ইউনিয়নের হোসেনডাঙ্গা গ্রামে মাটি পরীক্ষা করে সুষম সার ব্যবহারে কৃষকদের উদ্বদ্ধকরণের লক্ষ্যে  মাঠ দিবস অনুষ্ঠিত হয়েছে।
অনুষ্ঠানে বক্তারা বলেন, কৃষকদের ধানসহ সকল ফসলে সর্বোচ্চ ফলন পেতে হলে মাটির গুণাগুণ পরীক্ষার মাধ্যমে প্রয়োজনীয় সারের মাত্রা নির্ধারণ করে নেয়া উচিত। কেননা মাটি পরীক্ষা করে নিলে সুষম সার ব্যবহারের বিষয়টি নিশ্চত হওয়া সহজ হবে।
মাঠ দিবসে জানানো হয়, কৃষক আব্দুল মোত্তালেবের এক বিঘা প্রদর্শনী প্লটে মাটি পরীক্ষা করে সার নির্ধারণ করে দেয়া হয়। তার এই এক বিঘা জমিতে ইরি ধানের ফলন পাওয়া গেছে ২৩ মণেরও বেশি। এতে তার খরচ হয়েছে ১ হাজার ৪৫০ টাকা। পাশাপাশি তার অপর এক বিঘা কন্ট্রোল প্লটে ইচ্ছেমত সার ব্যবহার করে ফলন পেয়েছেন ২৪ মণ। এতে তার খরচ হয়েছে ২ হাজার ৭৫০ টাকা। অর্থাৎ প্রায় দ্বিগুণ। এতে একদিকে যেমন খরচ বেশি হয়েছে অন্যদিকে তেমনি মাটির উর্বরতাও নষ্ট হয়েছে। তাই বেশি ফলনের চিন্তা বাদ দিয়ে কম খরচ করে সমপরিমাণ ফসল উৎপাদন করা এবং পাশাপাশি মাটির উর্বরত ঠিক রাখার জন্য কৃষকদের প্রতি আহ্বান জানানো হয়।
শুক্রবার সকালে সদর উপজেলা কৃষি অফিসের আয়োজনে অনুষ্ঠিত মাঠ দিবসে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন, জেলা কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক নজরুল ইসলাম, মৃত্তিকা সম্পদ উন্নয়ন ইনস্টিটিউ, ঢাকার মুখ্য বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. তৈয়বুর রহমান, কৃষি মন্ত্রণালয়ের গবেষণা কর্মকর্তা নজরুল ইসলাম, উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার সলেহ আকরাম, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা আব্দুল মতিন, কৃষক আব্দুল মোত্তালেবসহ অন্যরা।
মাঠ দিবসে ৩০ জন কৃষক-কৃষাণি অংশগ্রহণ করেন।