মুক্তির অপেক্ষায় চঞ্চলের দুটি সিনেমা

9

‘মনপুরা’ খ্যাত পরিচালক গিয়াসউদ্দিন সেলিমের ‘পাপপুণ্য’ সিনেমায় অভিনয় করেছেন চঞ্চল চৌধুরী। গ্রামের জীবনের গল্প নিয়ে নির্মিত হয়েছে এটি। এতে একজন চেয়ারম্যানের ভূমিকায় অভিনয় করেছেন চঞ্চল। অন্যদিকে মেজবাউর রহমান সুমনের প্রথম চলচ্চিত্র ‘হাওয়া’। সমুদ্রপাড়ের জেলেদের সংগ্রামী জীবনের গল্প নিয়ে গড়ে উঠেছে কাহিনি। এতে চঞ্চল চৌধুরীকে প্রধান মাঝির চরিত্রে দেখা যাবে। সেন্টমার্টিনে টানা একমাস শুটিং করেছে সিনেমাটির পুরো টিম। চঞ্চল অভিনীত এ দুটি সিনেমা মুক্তির অপেক্ষায় রয়েছে। চঞ্চল চৌধুরী বলেনÑবাংলাদেশের সিনেমায় যে ধারা চলছে, সে ধারাকে আরো শক্তিশালী করবে আমার অভিনীত এ দুটি সিনেমা। ‘পাপপুণ্য’ সিনেমার মাধ্যমে শ্রদ্ধেয় গিয়াসউদ্দিন সেলিমের লেখা, নির্দেশনা এবং নির্মাণশৈলীতে আবারো জাদুর ছোঁয়া পাবেন দর্শক। অন্যদিকে মেজবাউর রহমান সুমনের সিনেমাটি নিয়েও ভীষণ আশাবাদী চঞ্চল। নির্মাতার প্রশংসা করে চঞ্চল বলেনÑঅনেক চ্যালেঞ্জ নিয়ে সর্বোচ্চ মেধা দিয়ে প্রথম সিনেমা নির্মাণ করছেন সুমন। ধারনা করছি, সমুদ্রপাড়ের মাঝিদের সংগ্রামী জীবনের গল্প নিয়ে এ ধরনের সিনেমা এত যতœ করে এর আগে নির্মিত হয়নি। আমার বিশ্বাস, এই দুটি সিনেমা মুক্তি পেলে দর্শকের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলবে। করোনা সংকটের শুরু থেকে ঘরবন্দি চঞ্চল চৌধুরী। এদিকে দীর্ঘ দিন টিভি নাটকের শুটিং বন্ধ থাকার পর শুটিংয়ের অনুমতি দিয়েছে সংশ্লিষ্ট সংগঠন। কিন্তু এখনি শুটিংয়ে ফিরছেন না এই অভিনেতা। আরো কিছুটা সময় পর্যবেক্ষণে রাখার পর শুটিংয়ে ফেরার সিদ্ধান্ত নেবেন তিনি।