টিকা সম্মেলন : বৈশ্বিক স্বাস্থ্য সহযোগিতায় নতুন যুগের সূচনার আহবান ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রীর

23

ব্রিটিশ প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন বৈশিক স্বাস্থ্য সহযোগিতায় নতুন যুগের সূচনার আহবান জানিয়েছেন।
করোনা মহামারির প্রেক্ষাপটে বৃহস্পতিবার (৪ জুন) তহবিল সংগ্রহের লক্ষে টিকা সম্মেলন আয়োজন করছেন বরিস জনসন। সম্মেলন উপলক্ষে তিনি কোভিড-১৯ এর সম্ভাব্য টিকা তৈরিতে সহযোগিতায় বৈশ্বিক প্রচেষ্টার এ আহবান জানান।
মহামারির কারণে স্থবির হয়ে পড়া টিকা কর্মসূচির জন্য ৭৪০ কোটি মার্কিন ডলার এবং কোভিড-১৯ এর সম্ভাব্য ভ্যাকসিন তৈরিতে নতুন করে তহবিল সংগ্রহের লক্ষে এই ভার্চুয়াল সম্মেলনের আয়োজন করা হচ্ছে।
এক বিবৃতিতে জনসন বলেন, আমি আশা করি স্বাস্থ্য সহযাগিতার ক্ষেত্রে এই সম্মেলন নতুন যুগের সূচনা করবে, যা খুবই গুরুত্বপূর্ণ।
বৃহস্পতিবারের এ সম্মেলনে বিশ্বের ৫০টিরও বেশি দেশ অংশ নিচ্ছে। এছাড়া ব্যক্তিগতভাবে বিল গেটসসহ আরো অনেকেই এতে অংশ নিচ্ছেন। আগামী পাঁচ বছর স্থবির হয়ে পড়া টিকা কর্মসূচি জোরদার এবং স্বল্পমূল্যে তা সরবরাহ করে ৩০ কোটি শিশুকে এর আওতায় নিয়ে আসা এই সম্মেলনের লক্ষ্য।
এছাড়া এই মহামারির কারণে বৈশ্বিক সহযোগিতার ক্ষেত্রে উল্লেখযোগ্য কিছু পরিবর্তন ঘটেছে। বিশেষ করে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা থেকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বেরিয়ে আসার সিদ্ধান্ত এক্ষেত্রে উল্লেখ করার মতো। তবে জনসন সতর্ক করে বলেছেন, ব্রিটেনের মতো যেসব দেশ করোনায় সবচেয়ে বেশি পর্যুদস্ত হয়েছে তারা উন্নয়নশীল দেশগুলোকে সহযোগিতার মাধ্যমে উপকৃত হবে।
তিনি বলেন, নিয়মিত টিকা কর্মসূচিকে সহযোগিতার মাধ্যমে দরিদ্র দেশের স্বাস্থ্য ব্যবস্থা উন্নত হবে যার মাধ্যমে তারা করোনা মোকাবেলায় সক্ষম হবে। এর মধ্যদিয়ে বিশ্বে করোনা ছড়িয়ে পড়া রোধ হবে।
সাংবাদিকদের তিনি আরো বলেন, ভাইরাসটি আমাদের দেখিয়ে দিয়েছে আমরা পারস্পরিক কতটা সম্পর্কিত। আমরা এক অদৃশ্য শক্তির মোকাবেলা করছি। সবাই নিরাপদ না হওয়া পর্যন্ত আমরা কেউই নিরাপদ নই।