নিজ গৃহ ও কর্মস্থলে সচেতনতার প্রাচীর গড়ে তুলতে বললেন ওবায়দুল কাদের

19

সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী এবং বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের করোনার সংক্রমণ রোধে সবাইকে দৃঢ় মনোবল নিয়ে নিজ নিজ গৃহ এবং কর্মস্থলে সচেতনতার প্রাচীর নির্মাণের আহবান জানিয়েছেন।
মন্ত্রী মঙ্গলবার (২ জুন) সকালে সংসদ ভবন এলাকার বাসভবন থেকে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন করপোরেশন-বিআরটিসি’র কর্মকর্তা-কর্মচারীদের সাথে ভিডিও কনফারেন্সে এ আহবান জানান।
এ সময় মন্ত্রী বলেন, সোমবার থেকে শর্তসাপেক্ষে সারাদেশে গণপরিবহন চলছে। প্রথমদিনে অধিকাংশ ক্ষেত্রে স্বাস্থবিধি মানা হয়েছে। আবার কোথাও কোথাও স্বাস্থ্যবিধি না মানার অভিযোগও পাওয়া গেছে। তিনি এ সংকটে পরিবহন মালিক ও শ্রমিকদের স্বাস্থ্যবিধি ও সামাজিক দূরত্ব মেনে গণপরিবহন পরিচালনার জন্য আবারো অনুরোধ জানান।
যাত্রী সাধারণকে সচেতন হওয়ার আহবান জানিয়ে কাদের বলেন, সচেতনতা রোধ ও সামাজিক দূরত্ব যথাযথ প্রতিপালনের মধ্য দিয়ে আমরা এ সংক্রমণ রোধ করতে পারি। নিজেদের অবহেলা ও শৈথিল্য দুর্যোগ আরো ঘনীভূত হতে পারে বলে তিনি আশঙ্কা প্রকাশ করেন।
ভিডিও কনফারেন্সে তিনি কঠোরভাবে স্বাস্থ্যবিধি প্রতিপালনের ওপর গুরুত্বারোপ করে বলেন, বিআরটিসি’র বাসগুলোকে সংক্রমণ রোধ এবং স্বাস্থ্য সচেতনতার মডেল হিসেবে রূপান্তরের পাশাপাশি জনগণের আস্থার বাহনে রূপদান করতে হবে।
মন্ত্রী এ সময় অনিয়ম ও দুর্নীতির বৃত্ত থেকে বেরিয়ে এসে বিআরটিসিকে লাভের ধারায় ফিরিয়ে আনার আহবান জানান। তিনি বিআরটিসি বাসে ট্র্যাকিং ডিভাইস স্থাপন ও ডিজিটাল টিকেটিং চালুর উদ্যোগ গ্রহণের নির্দেশনা দেন।
বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. এহছানে এলাহীসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।