কোয়ারেন্টাইন না মানলে বিচার ভ্রাম্যমাণ আদালতে

বাংলাদেশে নভেল করোনা ভাইরাসের ব্যাপক বিস্তার ঠেকাতে বিদেশ ফেরতদের মধ্যে যারা হোম কোয়ারেন্টাইনে থাকবেন না, তাদের ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে সাজা দেয়া হবে। এজন্য সংক্রামক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূল) আইন, ২০১৮ এর ২৪, ২৫ ও ২৬ ধারাকে মোবাইল কোর্ট আইনের তফসিলে যুক্ত করে গত মঙ্গলবার গেজেট জারি করেছে সরকার। এর ফলে এই আইনের আওতায় সরকার যেসব বিধি-নিষেধ আরোপ করবে, কেউ তা না মানলে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে তাৎক্ষণিক সাজা দেয়া যাবে।
আইনের ওই ধারায় সংক্রামক রোগের বিস্তার এবং তথ্যগোপনের অপরাধ ও দ- সম্পর্কে বলা আছে : ২৪। (১) যদি কোনো ব্যক্তি সংক্রামক জীবাণুর বিস্তার ঘটান বা বিস্তার ঘটিতে সহায়তা করেন, বা জ্ঞাত থাকা সত্ত্বেও অপর কোনো ব্যক্তি সংক্রমিত ব্যক্তি বা স্থাপনার সংস্পর্শে আসিবার সময় সংক্রমণের ঝুঁকির বিষয়টি তাহার নিকট গোপন করেন তাহা হইলে ওই ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ। (২) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনূর্ধ্ব ৬ (ছয়) মাস কারাদ-, বা অনূর্ধ্ব ১ (এক) লক্ষ টাকা অর্থদ-, বা উভয় দ-ে দ-িত হইবেন।
দায়িত্ব পালনে বাধা প্রদান ও নির্দেশপালনে অসম্মতি জ্ঞাপনের অপরাধ ও দ- সম্পর্কে বলা আছে : ২৫। (১) যদি কোনো ব্যক্তি- (ক) মহাপরিচালক, সিভিল সার্জন বা ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে তাহার উপর অর্পিত কোনো দায়িত্ব পালনের ক্ষেত্রে বাধা প্রদান বা প্রতিবন্ধকতা সৃষ্টি করেন, এবং (খ) সংক্রামক রোগ প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রণ ও নির্মূলের উদ্দেশ্যে মহাপরিচালক, সিভিল সার্জন বা ক্ষমতাপ্রাপ্ত কর্মকর্তার কোনো নির্দেশ পালনে অসম্মতি জ্ঞাপন করেন, তাহা হইলে ওই ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ। (২) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনূর্ধ্ব ৩ (তিন) মাস কারাদ-, বা অনূর্ধ্ব ৫০ (পঞ্চাশ) হাজার টাকা অর্থদ-, বা উভয় দ-ে দ-িত হইবেন।
মিথ্যা বা ভুলতথ্য প্রদানের অপরাধ ও দ- : ২৬। (১) যদি কোনো ব্যক্তি সংক্রামক রোগ সম্পর্কে সঠিক তথ্য জ্ঞাত থাকা সত্ত্বেও ইচ্ছাকৃতভাবে মিথ্যা বা ভুল তথ্য প্রদান করেন তাহা হইলে ওই ব্যক্তির অনুরূপ কার্য হইবে একটি অপরাধ। (২) যদি কোনো ব্যক্তি উপ-ধারা (১) এর অধীন কোনো অপরাধ সংঘটন করেন, তাহা হইলে তিনি অনূর্ধ্ব ২ (দুই) মাস কারাদ-ে, বা অনূর্ধ্ব ২৫ (পঁচিশ) হাজার টাকা অর্থদ-ে, বা উভয় দ-ে দ-িত হইবেন।
উচ্চ আদালতের নির্দেশে গত সোমবার নভেল করোনা ভাইরাসকে সংক্রামক ব্যাধির তালিকাভুক্ত করে গেজেট প্রকাশ করে সরকার।