গোমস্তাপুরে প্রথমবারের মতো বাণিজ্যিকভাবে ফুল চাষ

চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুরে প্রথমবারের মতো বাণিজ্যিকভাবে ফুল চাষ শুরু হয়েছে। বরেন্দ্র ভূমি বলে খ্যাত উপজেলার রহনপুর ইউনিয়নের মাদাপুর গ্রামের সাদিকুল ইসলাম টুটুল ২০১৯ সালের প্রথম দিকে ৮ বিঘা জমিতে পরীক্ষামূলকভাবে বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ফুল চাষ শুরু করেন। এক বছরের মাথায় তিনি সফল ফুলচাষি হিসেবে এলাকায় আত্মপ্রকাশ করেছেন।
বসন্ত উৎসব, ভালোবাসা দিবস ও আন্তর্জাতিক মাতৃভাষা দিবসকে সামনে রেখে ফুলের চাহিদা তুলনামূলকভাবে বৃদ্ধি পাওয়ায় এবার তার ফুল বিক্রি বেড়েছে কয়েক গুণ। এ বছর কয়েক লাখ টাকার ফুল বিক্রি হবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা।
টুটুলের ফুলবাগানে চাষ করা হচ্ছে গোলাপ, রজনীগন্ধা, গাঁদা, গাল্ডিওলাক্সাসহ বিভিন্ন ধরনের ফুল। তার বাগান থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ, নওগাঁ ও রাজশাহী জেলার ব্যবসায়ীরা ফুল সংগ্রহ করছেন। যারা এর আগে যশোরের গদখালী থেকে ফুল সংগ্রহ করতেন। বাণিজ্যিক ভিত্তিতে এলাকায় ফুল চাষ বৃদ্ধি পেলে দেশের অন্যান্য স্থানের ফুলের চাহিদাও পূরণ করা সম্ভব হবে বলেন জানান এ ফুলচাষি।
সাদিকুল ইসলাম টুটুল জানান, ২০১৯ সালের প্রথম দিকে যশোর গদখালী থেকে চারা নিয়ে তার জমিতে ফুল চাষ শুরু করেন। ধীরে ধীরে তার বাগানে বিভিন্ন জাতের ফুলের সমারোহ দেখা যায়। তিনি জানান, ফুল চাষ করে নিজে স্বাবলম্বী হওয়ার পাশাপাশি গ্রামের কয়েকজন বেকারের কর্মসংস্থানও হয়েছে।
গোমস্তাপুর উপজেলা কৃষি বিভাগের উপসহকারী কৃষি কর্মকর্তা গানিউল ইসলাম জানান, উপজেলায় প্রথমবারের মতো বাণিজ্যিকভাবে ফুল চাষ করায় তাকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেয়া হচ্ছে।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মাসুদ হোসেন বলেন, এলাকায় ফুল চাষ বৃদ্ধি করার জন্য কৃষকদের উৎসাহিত করা হচ্ছে। ফুল চাষ বৃদ্ধি পেলে আর্থিকভাবে লাভবান হওয়ার পাশাপাশি বেকার সমস্যা দূর হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।