পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণে সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশ্বাস বিশ্বব্যাংকের

পরিবেশ দূষণ নিয়ন্ত্রণ ও বৃক্ষরোপণসহ ইতিবাচক সব বিষয়ে বাংলাদেশকে সহযোগিতা অব্যাহত রাখার আশ্বাস দিয়েছে বিশ্বব্যাংক। বুধবার বিকেলে সচিবালয়ে পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তনমন্ত্রী মো. শাহাব উদ্দিনের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎকালে বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর (বাংলাদেশ-ভুটান) মার্সি টেম্বন এ আশ্বাস দেন। পরিবেশ ও বন মন্ত্রণালয়ের সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে। বিশ্বব্যাংকের কান্ট্রি ডিরেক্টর বলেন, বাংলাদেশ বিভিন্ন ক্ষেত্রে দ্রুত উন্নয়ন করছে। কিন্তু প্লাস্টিক, পলিথিন, দূষণসহ সার্বিক পরিবেশদূষণ বাংলাদেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক উন্নয়নকে বাধাগ্রস্ত করছে। এজন্য পরিবেশদূষণ নিয়ন্ত্রণে বিশ্বব্যাংক বাংলাদেশের সঙ্গে ঘনিষ্ঠভাবে কাজ করতে চায়।

তিনি আরও বলেন, পরিবেশদূষণ নিয়ন্ত্রণ ও বৃক্ষরোপণসহ ইতিবাচক সব বিষয়ে বাংলাদেশের প্রতি বিশ্বব্যাংকের সহযোগিতা অব্যাহত থাকবে। এ সকল বিষয়ে নতুন প্রকল্পে বিশ্বব্যাংক অর্থায়নে প্রস্তুত। পরিবেশ ও বনমন্ত্রী বলেন, বায়ু ও শব্দ দূষণসহ সকল প্রকার দূষণ রোধ ও অধিক পরিমাণ বৃক্ষরোপণে বর্তমান সরকার আন্তরিকভাবে কাজ করছে। এ ক্ষেত্রে বিশ্বব্যাংকসহ অন্যান্য উন্নয়ন সহযোগীদের সহায়তা পেলে বাংলাদেশে দূষণ নিয়ন্ত্রণ কার্যক্রম আরও জোরদার হবে। এ সময় তারা বাস্তবায়নাধীন ‘টেকসই বন ও জীবিকা (সুফল)’ প্রকল্পসহ বিভিন্ন নতুন প্রকল্পে বিশ্বব্যাংকের সহযোগিতার বিষয়ে আলোচনা করেন। পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রণালয়ের উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার, সচিব জিয়াউল হাসান, অতিরিক্ত সচিব এস এম মনজুরুল হান্নান ও মাহমুদ হাসান, বন অধিদফতরের প্রধান বন সংরক্ষক শফিউল আলম চৌধুরী, পরিবেশ অধিদদফতরের মহাপরিচালক এ কে এম রফিক আহাম্মদ এবং বিশ্বব্যাংকের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।