খালেদার দণ্ড স্থগিতের আবেদন করা হলে সরকার বিবেচনা করবে : অ্যাটর্নি জেনারেল

Mahbube-Alamদুর্নীতির মামলায় দন্ড প্রাপ্ত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার সাজা স্থগিতের আবেদন করলে সরকার বিষয়টি বিবেচনা করবে বলে মন্তব্য করেছেন অ্যাটর্নি জেনারেল মাহবুবে আলম। মঙ্গলবার সুপ্রিম কোর্টের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।
মাহবুবে আলম বলেন, সাধারণত সাজা সাসপেন্ড (স্থগিত) করা হয় অনেকদিন সাজা খাটার পরে। অনেকদিন সাজা খাটার পর সরকার বিশেষ বিবেচনায় এটা (সাজা স্থগিত) করে, করতে পারে। সে রকম মামলা যদি তারা করতে পারে, সেটা সরকারের ব্যাপার। তিনি আরো বলেন, জেলখানায় যারা থাকেন এবং বহুদিন কারাদ- ভোগ করেন ৪০১ (১) ধারা (ফৌজদারি কার্যবিধি) অনুযায়ী তাদের নানাবিধ বিবেচনায় অনেক সময় স্থগিত করা হয়। কিন্তু তারা যদি প্রমাণ করতে পারেন, তবে সে ব্যাপারে সরকার দেখবে।
এর আগে ৯ জানুয়ারি এক সংবাদ সম্মেলনে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের আহ্বায়ক জ্যেষ্ঠ আইনজীবী খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেছিলেন, জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্টের মামলায় সর্বোচ্চ সাজা পাঁচ বছর দেয়া হয়েছে। এরইমধ্যে তিনি ২ বছর কারাগারে আটক রয়েছেন। তাই আইনের স্বাভাবিক প্রক্রিয়া ছাড়াও তিনি একজন বয়স্ক অসুস্থ মহিলা, এ কারণেও দেশের প্রচলিত আইন অনুযায়ী তিনি জামিন প্রাপ্য। কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য দেশের সর্বোচ্চ আদালত এ মামলায় তার জামিনের আবেদন খারিজ করে দিয়েছেন।