ঢাবির ৬৭ শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কারের সুপারিশ

প্রশ্নফাঁস, ভর্তি পরীক্ষায় জালিয়াতিসহ বিভিন্ন অভিযোগে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন বিভাগের ৬৭ জন শিক্ষার্থীকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে। উপাচার্য অধ্যাপক মো. আখতারুজ্জামানের সভাপতিত্বে গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা পরিষদের সভায় এ সুপারিশ করা হয় বলে প্রক্টর অধ্যাপক গোলাম রাব্বানী জানান।
গোলাম রাব্বানী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম সিন্ডিকেটের আগামী সভায় ওই ৬৭ জনকে বহিষ্কারের সুপারিশ চূড়ান্ত অনুমোদনের জন্য তোলা হবে।
ভর্তি পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস ও জালিয়াতির সঙ্গে জড়িত থাকার অভিযোগে গত ২৩ জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ৮৭ শিক্ষার্থীসহ মোট ১২৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দিয়েছিল পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগ-সিআইডি। ওই ৮৭ জনের মধ্যে ১৫ জনকে আগেই স্থায়ীভাবে বহিষ্কার করেছিল ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।
গতকাল মঙ্গলবার বিশ্ববিদ্যালয়ের শৃঙ্খলা পরিষদের সভায় আরো ৬৩ জনকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়। আর বাকি ৯ জনকে সাময়িক বহিষ্কার করে সাত দিনের মধ্যে কারণ দর্শাতে বলার সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানান প্রক্টর। তিনি বলেন, মহসিন হলে মাদক ও অস্ত্রসহ আটক হওয়ার ঘটনায় আরো চারজনকে স্থায়ীভাবে বহিষ্কারের সুপারিশ করা হয়েছে শৃঙ্খলা পরিষদের সভায়। এছাড়া বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে সাংবাদিকদের ওপর হামলার ঘটনায় দুজনকে ৬ মাসের জন্য অ্যাকাডেমিক কার্যক্রম থেকে নিষিদ্ধ করা হয়েছে। বিভিন্ন সময়ে ছিনতাই ও মাদক সেবনে জড়িত থাকায় আরো ১৩ শিক্ষার্থীকে সাময়িক বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে অধ্যাপক গোলাম রাব্বানী জানান।