একাধিক মার্কিন প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের সঙ্গে ব্যবসার ‘অনুমোদন’ পেয়েছে

2

বেশ কয়েকটি প্রতিষ্ঠানকে হুয়াওয়ের সঙ্গে ব্যবসা করা প্রশ্নে ছাড় দিচ্ছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। সম্প্রতি দেশটির বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এরকম একাধিক ছাড় দেওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে। ঠিক কোন কোন প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ের সঙ্গে ব্যবসা করার জন্য অনুমোদন পেয়েছে, বা কোন প্রযুক্তি পণ্যগুলো ছাড়ের আওতায় পড়বে তা এখনও জানা যায়নি। মার্কিন বাণিজ্য মন্ত্রী উইলবার রস বলেছেন, “কারা সরকারের ছাড় পেয়েছে আর কারা পায়নি, সে বিষয়গুলো কর্মকর্তারা প্রতিষ্ঠানগুলোকে জানানো শুরু করেছে।” — খবর ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসি’র। মার্কিন বাণিজ্য মন্ত্রী রস-এর দেওয়া তথ্য অনুসারে, নিষেধাজ্ঞা থেকে ছাড় পেতে আবেদন করেছিল ২৯০টি প্রতিষ্ঠান। সাম্প্রতিক এক বিবৃতিতে মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেছেন, “জাতীয় নিরাপত্তা বা মার্কিন বৈদেশিক নীতি হুমকির মুখে পড়বে না এরকম সীমিত এবং সুনির্দিষ্ট কার্যক্রমে ছাড় দেওয়ার লক্ষ্যে ‘সংকীর্ণ অনুমোদন’ দেওয়া শুরু করেছে মন্ত্রণালয়।” তবে, এদের মধ্যে গুগল, মাইক্রোসফট, অ্যাপলের মতো টেক জায়ান্ট রয়েছে কিনা তা জানা যায়নি। বিবিসি উল্লেখ করেছে, গুগল এবং মাইক্রোসফটের কাছে বিষয়টি নিয়ে মন্তব্য জানতে চাওয়া হয়েছিল, কিন্তু প্রতিষ্ঠান দুটি এ বিষয়ে কোনো মন্তব্য করেনি। হুয়াওয়ের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা না সরলেও, ছাড়ের পরিধি বাড়ছে। ইতোমধ্যেই সোমবার মার্কিন বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ৯০ দিনের সাধারণ ‘সাময়িক অনুমোদন’ ইস্যু করা হয়েছে। ওই সাময়িক অনুমোদনের সুফল পাবে এমন প্রতিষ্ঠানের মধ্যে রয়েছে প্রত্যন্ত অঞ্চলের মার্কিন টেলিযোগাযোগ নেটওয়ার্ক অপারেটররাও। এদিকে, বুধবারের ছাড়টিকে এ সপ্তাহে হুয়াওয়ের পাওয়া ‘দ্বিতীয় ছাড়’ হিসেবে আখ্যা দিয়েছে ব্রিটিশ সংবাদ সংস্থা রয়টার্স। পুরো বিষয়টি নিয়ে এখনও কোনো মন্তব্য করেনি হুয়াওয়ে। উল্লেখ্য, চলতি বছরের মে মাসে জাতীয় নিরাপত্তার কথা বলে প্রতিষ্ঠানটিকে কালো তালিকাভুক্ত করে যুক্তরাষ্ট্র। পরবর্তীতে প্রতিষ্ঠানটির লেনদেনের সুবিধার্থে মে মাসে ও অগাস্ট মাসে ৯০ দিন করে জন্য সাময়িক অনুমোদন দেওয়া হয়।