জাপানি মহাকাশযান কৃত্রিম গর্ত বানাতে গ্রহাণুতে ‘বোমা মেরেছে’

সৌরজগতের আদি একটি গ্রহাণুর পৃষ্ঠে কৃত্রিম গর্ত বানাতে সেখানে জাপানি মহাকাশযান হায়াবুসি-২ একটি বিস্ফোরণ ঘটিয়েছে বলে ধারণা করা হচ্ছে।
স্মল ক্যারি-অন ইম্পেক্টর (এসসিআই) নামের ১৪ কেজির ওই বিস্ফোরক রিয়ুগু গ্রহাণুতে ১০ মিটার প্রশস্ত একটি কৃত্রিম গর্ত তৈরি করবে বলে অনুমান করা হচ্ছে।
বিস্ফোরণের কয়েক সপ্তাহ পর হায়াবুসা-২ গ্রহাণুটি থেকে গবেষণার জন্য নমুনা সংগ্রহ করবে।
এসব নমুনা থেকে সৌরম-লের প্রাথমিক অবস্থায় পৃথিবী কীভাবে সৃষ্টি হয়েছে সে সম্বন্ধে ধারণা পাওয়া যাবে বলে অনুমান বিজ্ঞানীদের।
মহাশূন্যে জাপানের এ পরীক্ষাটি সফল হয়েছে কিনা তা চলতি মাসের শেষ দিকে জানা যাবে, বলছে কিয়োডো নিউজ।
বিস্ফোরণের আগে রিয়ুগুর পৃষ্ঠ থেকে ৫০০ মিটার উপরে শুক্রবার হায়াবুসা-২ থেকে সফলভাবে এসসিআইকে আলাদা করা সম্ভব হয় বলে জানিয়েছে বিবিসি।
বিস্ফোরণ সংঘটনের আগেই জাপানি মহাকাশযানটি রিয়ুগুর অপর পৃষ্ঠে চলে যাবে। বিস্ফোরণের পর গ্রহাণুটি থেকে ছিটকে আসা পাথর ও অন্যান্য পদার্থ যেন হায়াবুসির ক্ষতি না করতে পারে সেজন্যই তাকে লুকিয়ে রাখার এ পরিকল্পনা করা হয়েছে।
বিস্ফোরণের এ মুহুর্তগুলো ক্যামেরাবন্দি করতে গ্রহাণুটির এক কিলোমিটার দূরে একটি ছোট ডিসিএএম-৩ ক্যামেরাও বসিয়েছে জাপানের মহাকাশ গবেষণা সংস্থা (জাক্সা)।
ছবিগুলো পৃথিবীতে পাঠাতে কত সময় লাগবে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি।
বিজ্ঞানীরা বলছেন, পরিকল্পনামাফিক সবকিছু চললে বিস্ফোরণের কয়েক সপ্তাহ পর হায়াবুসা-২ ফের রিয়ুগু থেকে নমুনা সংগ্রহ করতে নামবে।
এসব নমুনা সৌরজগতের প্রথম দিকে কী করে গ্রহগুলো সৃষ্টি হয়েছিল সে সম্বন্ধে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য দিতে পারবে বলেও আশা করা হচ্ছে।