রাজ্য নির্বাচন কমিশনের অধীনে সমস্ত ভোট হবে ব্যালটে : মমতা

পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভয় দেখিয়ে কোনো কাজ হবে না। রোববার কলকাতায় একুশে জুলাইয়ের সভামঞ্চ থেকে বিজেপির উদ্দেশে এমন মন্তব্য করেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী ঘোষণা দেন, রাজ্য নির্বাচন কমিশনের অধীনে সমস্ত ভোট হবে ব্যালটে। ২১ জুলাইকে পশ্চিমবঙ্গের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস শহীদ দিবস হিসেবে পালন করে। ১৯৯৩ সালের ২১ জুলাই কলকাতায় পুলিশের গুলিতে নিহত কংগ্রেস কর্মীদের স্মরণে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রতি বছর এ দিনটি পালন করে থাকেন। কলকাতার ধর্মতলায় শহীদ স্মরণ মঞ্চ থেকে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, ‘যেদিন চলে যাব, হাসতে হাসতে চলে যাব। আমাকে ধমকে-চমকে কিছু লাভ হবে না।’
মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় আরো জানান, সম্প্রতি রাজ্যে সারদা, নারদা ইস্যুতে ফের তৎপর হয়েছে সিবিআই। তৃণমূলের একাধিক লোকজনকে জেরা করার নোটিশ পাঠানো হয়েছে। জেরা করা হয়েছে অভিনেতা প্রসেনজিৎ চট্টোপাধ্যায় ও অভিনেত্রী ঋতুপর্ণা সেনগুপ্তকে। এই বিষয়ে মমতা কটাক্ষ করেন, বিজেপি না পেরে গোয়েন্দা সংস্থার ওপর নির্ভর করছে। সংস্থাকে দিয়ে তৃণমূল কংগ্রেস নেতাকর্মীদের চাপ সৃষ্টি করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেন পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী। লোকসভা ভোটের অনেক আগে থেকেই বিজেপি ইস্যুতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় লড়াই করছেন। এখনো মোদি সরকারের বিরুদ্ধে সে আক্রমণ তিনি চালিয়ে যাচ্ছেন। বিরুদ্ধাচারণের রাজনীতিতে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের দলকে ভয় দেখিয়ে বিজেপি নেতারা বাগে আনার চেষ্টা করছেন বলে অভিযোগ করেন তিনি। বলেন, ‘মমতার শক্তি খর্ব করার চেষ্টা হচ্ছে।’ পাশাপাশি দাবি করেন, মানুষের সঙ্গে তিনি বরাবর কাজ করেছেন। কাজেই কোনোভাবে সেই শক্তিকে শেষ করা সম্ভব নয়।
একুশে জুলাইয়ের সভামঞ্চ থেকে  মমতা ঘোষণা দেন, ‘ইভিএম নয়, ব্যালট চাই।’ তিনি বলেন, ‘রাজ্যস্তরের সব নির্বাচন ব্যালটে করবে রাজ্য নির্বাচন কমিশন। এভাবেই বাংলা ইভিএমের বিরুদ্ধে গিয়ে ব্যালট এনে দেশকে পথ দেখাবে।’
উল্লেখ্য, সদ্যসমাপ্ত লোকসভা নির্বাচনে সংগঠনের তেমন কোনো শক্তি ছাড়াই পশ্চিমবঙ্গে অভাবনীয় ফলাফল করেছে ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি)। ৪২টির মধ্যে ১৮টি আসনেই জিতেছে বিজেপি। তাতে রাজ্যের শাসকদল স্বভাবতই কিছুটা চাপে পড়েছে। উনিশের ভোট তাই ‘হিস্ট্রি’ নয়, ‘মিস্ট্রি’ এমন মন্তব্য করেছেন তৃণমূল সুপ্রিমো। কোথাও কোথাও ইভিএম কারচুপির অভিযোগও উঠেছে। সে কারচুপির অভিযোগে একযোগে সরব হয়েছে বিভিন্ন আঞ্চলিক দল। তার পরই গতকাল রোববার তৃণমূল মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় স্পষ্ট ঘোষণা করে দিলেন, ইভিএম বাতিল করে ব্যালট ফিরিয়ে আনতে পথ দেখাবে বাংলা। রাজ্য নির্বাচন কমিশনের অধীনে যেসব ভোট হবে যেমন পঞ্চায়েত, পুরসভা (পৌরসভা) নির্বাচন ব্যালটেই হবে।
এ প্রসঙ্গে মমতা বলেন, ‘আমেরিকা, ইংল্যান্ড ও ইউরোপের অন্য দেশগুলোতে কেন ব্যালটে ভোট হয়? আমরাও ব্যালট ফিরিয়ে আনব। নিজেদের স্থানীয় প্রশাসনের ভোটে ইভিএম ব্যবহার করব না, ব্যালট ফিরিয়ে আনব। আমরাই দেশকে পথ দেখাব।’