সেমিফাইনালে এএফসি কাপে আবাহনীর প্রতিপক্ষ উত্তর কোরিয়ার ক্লাব

আবাহনী লিমিটেড এএফসি কাপে বাংলাদেশের প্রথম কোনও ক্লাব হিসেবে নক আউট পর্বে গিয়ে ইতিহাস গড়েছে । এবার তাদের সামনে আরও এগিয়ে যাওয়ার হাতছানি। ইন্টার জোন সেমিফাইনালে আকাশি-হলুদদের সামনে বাধা উত্তর কোরিয়ার ৪.২৫ স্পোর্টস ক্লাব, যাদের আবার এপ্রিল টোয়েন্টি ফাইভ ক্লাব নামে পরিচিতি আছে।
মঙ্গলবার মালয়েশিয়ার কুয়ালালামপুরে এএফসির হেড কোয়ার্টারে অনুষ্ঠিত ড্রতে আবাহনীর এই নক আউট প্রতিপক্ষ নিশ্চিত হয়। ইন্টার জোন সেমিফাইনালে আবাহনী প্রথম খেলবে হোম ম্যাচ। অনুষ্ঠিত হবে ২১ আগস্ট। অ্যাওয়ে ম্যাচটি হবে পিয়ংইয়ংয়ে ২৮ আগস্ট।
নক আউট পর্বে উত্তর কোরিয়াকে প্রতিপক্ষ হিসেবে পেয়ে আবাহনীর পর্তুগিজ কোচ মারিও লেমসবলেছেন, ‘নক আউট পর্বে যেই পড়বে তারা শক্তিশালী হবে। আর উত্তর কোরিয়ার এই দলের পারফরম্যান্স তো ভালো। তাদের বিপক্ষে জেতাটা আমাদের জন্য কঠিন হবে। কিন্তু নক আউট পর্বে যে কোনও ফল হতে পারে। আমরা জয়ের জন্যই তাদের বিপক্ষে খেলবো।’
এছাড়া ইন্টার জোন সেমিফাইনালে আসিয়ান জোনের বিজয়ী দল খেলবে তুর্কমেনিস্তানের আলটিন আসির এর বিপক্ষে। আসিয়ান জোনের ফাইনালে লড়বে দুই ভিয়েতনামের ক্লাব- হ্যানয় এবং বিনা দুয়োং।
ইন্টার জোন সেমিফাইনালে বিজয়ী দুদল খেলবে ইন্টার জোন প্লে-অফ ফাইনাল। এই ম্যাচের জয়ী দল চলে যাবে এএফসি কাপের ফাইনালে। ফাইনালে ওয়েস্ট জোনের একটি দল থাকবে। ওয়েস্ট জোনের ফাইনালের প্লে-অফে মুখোমুখি হবে জর্ডানের আল জাজিরা ও লেবাননের আল আহেদ। ফাইনাল অনুষ্ঠিত হবে ২ নভেম্বর।
শিরোপা নির্ধারণী ম্যাচের টিকিট পেতে দুটো জয় চাই আবাহনীর। অর্থাৎ ইন্টার জোন সেমিফাইনাল ও ইন্টার জোন প্লে-অফ ফাইনালে জিততে হবে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে ছয় বারের চ্যাম্পিয়নদের।