যারা মেলায় অংশ নিয়েছে দেশের হাল তারাই ধরবে : মো. আনওয়ার হোসেন

‘বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি, অগ্রগতির মূল শক্তি’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে চাঁপাইনবাবগঞ্জে জেলা পর্যায়ে তিন দিনব্যাপী ৪০তম জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ এবং বিজ্ঞান মেলা শুরু হয়েছে। মঙ্গলবার নবাবগঞ্জ সরকারি কলেজের এনএম খান অডিটোরিয়ামে প্রধান অতিথি হিসেবে এ মেলার উদ্বোধন করেন রাজশাহী বিভাগের অতিরিক্ত বিভাগীয় কমিশনার (সার্বিক) মো. আনওয়ার হোসেন।
জেলা প্রশাসক এ জেড এম নূরুল হকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বক্তারা তাদের বক্তৃতায় নতুন প্রজন্মকে বিজ্ঞানমনস্ক হিসেবে গড়ে ওঠার প্রতি গুরুত্বারোপ করেন। দেশের ভবিষ্যৎ অগ্রযাত্রায় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি কি ধরনের ভূমিকা রাখতে পারে তা তুলে ধরেন এবং মাদক, জঙ্গিবাদ ও সন্ত্রাসকে তীব্রভাবে নিরুৎসাহিত করেন।
প্রধান অতিথি মো. আনওয়ার হোসেন শিক্ষার্থীদের উদ্দেশে বলেন- তোমরাই দেশের ভবিষ্যৎ গড়বে, তাই তোমাদের বিজ্ঞানভিত্তিক জ্ঞানচর্চা করতে হবে। তা না হলে দেশ পিছিয়ে যাবে। তিনি বলেন, তারুণ্যের শক্তি সবচেয়ে বড় শক্তি। মহান মুক্তিযুদ্ধে তরুণরা বিরাট ভূমিকা রেখেছিলেন, তরুণদের আত্মত্যাগ ছিল স্মরণীয়। আজ তোমরা যারা তরুণ, যারা আজ এ মেলায় অংশ নিয়েছ, তারাই আগামী দিনে দেশের হাল ধরবে। তিনি বলেন, বিজ্ঞানকে অস্বীকার করা যাবে না, কেননা বিজ্ঞান ছাড়া আমরা চলতে পারব না। তাই আমাদের সবাইকে বিজ্ঞান সম্পর্কে জানতে হবে, বিজ্ঞানমনস্ক হতে হবে। বিজ্ঞানচর্চায় শিক্ষার্থীদের এগিয়ে আসতে হবে, আবিষ্কার করতে হবে। আমরা এখন ঘুমিয়ে স্বপ্ন দেখি না, জেগে স্বপ্ন দেখি। সেই স্বপ্ন একটি সুখী সমৃদ্ধ দেশের স্বপ্ন, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সোনার বাংলার স্বপ্ন।
প্রধান অতিথি বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সে লক্ষেই কাজ করে যাচ্ছেন। সরকারের কর্মসূচিগুলো আমরা বাস্তবায়ন করছি। তিনি বলেন- প্রশাসন এখন জনবান্ধব, যে কোনো সমস্যা জেলা প্রশাসককে জানালে তিনি সমাধান করবেন। চাঁপাইনবাবগঞ্জের জেলা প্রশাসক অত্যন্ত ভালোমানুষ এবং জনবান্ধব মানুষ। এখনকার জেলা প্রশাসক শাসক নয়, সেবক। অতিরিক্ত এ কমিশনার আরো বলেন- এখন অনলাইন সেবা চালু হওয়ায় মানুষ ঘরে বসেই সেবা পাচ্ছে, মানুষকে আর হয়রানি হতে হয় না।
অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের নাট্যকলা বিভাগের বিভাগীয় প্রধান অধ্যাপক ড. আলমগীর স্বপন, বাংলাদেশ কৃষি বিশ্ববিদ্যালয়ের মৃত্তিকা বিজ্ঞান বিভাগের প্রফেসর ড. আনোয়ারুল আবেদীন।
স্বাগত বক্তব্যে অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) এ.কে.এম. তাজকির-উজ-জামান জানান, এরই মধ্যে উপজেলা পর্যায়ে জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি সপ্তাহ এবং বিজ্ঞান মেলা সম্পন্ন হয়েছে। জেলার ৫ উপজেলা থেকে ৩টি গ্রুপে ৯ জন করে ৪৫ জন শিক্ষার্থী জেলা পর্যায়ের এ মেলায় অংশগ্রহণ করে তাদের প্রকল্প উপস্থাপন করছে। এছাড়াও কৃষি অফিসের একটি প্রকল্প রয়েছে।
অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সহকারী কমিশনার খাদিজা বেগম।
জাতীয় বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি জাদুঘর এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয়ের সহযোগিতায় জেলা প্রশাসন আয়োজিত এ মেলায় উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা) দেবেন্দ্র নাথ উরাঁও, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আলমগীর হোসেন, আঞ্চলিক উদ্যানতত্ত্ব গবেষণা কেন্দ্রের প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. জমির উদ্দিন।
উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে অতিথিরা প্রকল্পগুলো ঘুরে দেখেন। তিন দিনের মেলায় বিজ্ঞান অলিম্পিয়াড, সেমিনার, বিতর্ক, কুইজ ও উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতা এবং পুরস্কার বিতরণীর মাধ্যমে আগামীকাল বৃহস্পতিবার এ মেলা শেষ হবে।