ইভিএমই সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য বড় ধরণের উপায় : সিইসি

প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নূরুল হুদা বলেছেন, ইভিএম নিয়ে অনেক সমালোচনা থাকবে, কিছু ভুল-ভ্রান্তি থাকবে। তার পরও আমি মনে করি, ইভিএম সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য বড় ধরনের উপায়। বুধবার বেলা ১১টার দিকে ফরিদপুর জেলা প্রশাসকের সম্মেলন কক্ষে সদর উপজেলার স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ অনুষ্ঠানে এ কথা বলেন কে এম নূরুল হুদা। এ সময় সিইসি বলেন, আমাদের মূল লক্ষ্য, দেশের নির্বাচনগুলোতে ডিজিটাল পদ্ধতি নিয়ে আসার জন্য ইভিএম চালু করা। ইভিএম নিয়ে অনেক সমালোচনা থাকবে, কিছু ভুল-ভ্রান্তিও থাকবে। তার পরও আমি মনে করি, ইভিএম সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য বড় ধরনের উপায়। ইভিএম মাঝে মধ্যে কাজ করে না এমন অভিযোগের জবাবে কে এম নূরুল হুদা বলেন, ইভিএমের ব্যাপারে যে কমপ্লেইন তা হলো, মেশিন কাজ করে না। এটা তো করতেই পারে। একটা গাড়িতে যাবেন, এখান থেকে ঢাকা পর্যন্ত, আপনি কি শিওর গাড়িটা মাঝখানে বন্ধ হবে না? এটা বেইজড অন টেকনিক্যাল ম্যাটারস। ব্যাটারিচালিত ইঞ্জিন, সুতরাং এটা ভুল হবে না কেন? ভুল নাম বা ভুল তথ্য দিয়ে রোহিঙ্গারা ভোটার হতে পারবে না জানিয়ে সিইসি বলেন, রোহিঙ্গাদের নিয়ে জাতি খুবই সমস্যার মধ্যে রয়েছে। রোহিঙ্গারা যখন এ দেশে প্রবেশ করে, তার কিছুদিন পরেই তাদের সবার ১০ আঙুলের ছাপ নিয়ে রেখেছে প্রশাসন। ভুল নাম বা ভুল তথ্য দিয়ে রোহিঙ্গারা ভোটার হতে পারবে না। নির্বাচন কমিশন (ইসি) সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার থেকে ২৮ আগস্ট পর্যন্ত ফরিদপুর সদর উপজেলার তিন লাখ ৩৬ হাজার ১০৪ জন ভোটারদের মধ্যে স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ করা হবে। অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক মো. আসলাম মোল্লার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে আরো বক্তব্য দেন ফরিদপুর আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা নুরুজ্জামান তালুকদার, জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. লোকমান হোসেন মৃধা, সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. রাজ্জাক মোল্লা, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো. সাইফুজ্জামান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা নায়বুল ইসলাম, সদর উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মো. নূরু আমীন প্রমুখ।