কোহলির জন্য এই বিশ্বকাপ একেবারেই আলাদা

২০১১ সালে প্রথম বিশ্বকাপ খেলেই চ্যাম্পিয়ন হওয়ার স্বাদ পেয়েছেন বিরাট কোহলি। ভারতের এই তারকা ব্যাটসম্যান ছিলেন গত বিশ্বকাপেও। এবার ইংল্যান্ডে খেলবেন ক্যারিয়ারের তৃতীয় বিশ্বকাপ। পুরো দলের দায়িত্ব এবার তার কাঁধে, আগের দুইবারের চেয়েও অনেক বেশি সংশ্লিষ্টতা তার। ভারতের অধিনায়কের জন্য তাই এই বিশ্বকাপ একেবারে আলাদা।
১১ বছরের ক্যারিয়ারে এবারই প্রথম অধিনায়ক হিসেবে বিশ্বকাপে খেলার অভিজ্ঞতা হবে কোহলির। ৮ বছর আগে দেশের মাটিতে যখন শিরোপা জেতেন, তখন বয়স ছিল মাত্র ২২ বছর। ২০১৫ সালে অস্ট্রেলিয়া ও নিউজিল্যান্ড বিশ্বকাপে তিনি দলের গুরুত্বপূর্ণ অংশ হলেও নেতৃত্বে ছিলেন মহেন্দ্র সিং ধোনি।
এবার কোহলির জন্য ভিন্ন আবহ। দলের সঙ্গে তার সংশ্লিষ্টতা পুরোপুরি। এই বিশ্বকাপ তাই রোমাঞ্চ ছড়াচ্ছে ভারত অধিনায়কের মনে, ‘২০১১ সালে আমি দলেই ছিলাম, কিন্তু টিম মিটিং কিংবা সিদ্ধান্ত তৈরিতে আমার কোনও হাত ছিল না। ২০১৫ সালেও সবকিছুর সঙ্গে সংশ্লিষ্টতা ছিল না আমার।’
অধিনায়ক হিসেবে এই বিশ্বকাপকে অন্য চোখে দেখছেন কোহলি, ‘কিন্তু অধিনায়কের দৃষ্টিতে টিম ম্যানেজমেন্টের পাশে থেকে এর বিশালতা বুঝতে পারছি, এটা একেবারেই আলাদা। আমি মুখিয়ে আছি।’
তিনি আরও যোগ করেছেন, ‘অনেক দিন ধরে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার পর একটা বড় চ্যালেঞ্জের প্রয়োজন পড়ে। বিশ্বকাপের চেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ আছে বলে মনে করি না। গত কয়েক বছরে আমরা অনেক ম্যাচ খেলেছি, এখন যে টুর্নামেন্টের জন্য অনেক দল মুখিয়ে আছে সেখানে খেলতে যাব ভেবে আমি রোমাঞ্চিত। এটা চমৎকার কিছু।’ ক্রিকইনফো, আইসিসি