ইউভেন্তুসের দারুণ জয় নাপোলির মাঠে

13

প্রথমার্ধে জোড়া গোলে এগিয়ে যাওয়া ইউভেন্তুসকে দ্বিতীয়ার্ধে ভীষণ চাপে রাখলো নাপোলি। কিন্তু সুযোগ নষ্টের ভীড়ে সেরি আ চ্যাম্পিয়নদের আটকাতে পারলো না কার্লো আনচেলত্তির শিষ্যরা। দারুণ প্রতিদ্ব›িদ্বতাপূর্ণ লড়াইয়ে জিতে লিগ শিরোপা জয়ের পথে অনেকটা এগিয়ে গেল তুরিনের ক্লাবটি।
স্তাদিও সান পাওলোয় রোববার রাতে পয়েন্ট তালিকার শীর্ষ দুদলের লড়াইয়ে ২-১ গোলে জেতে ইউভেন্তুস। ২৬ রাউন্ড শেষে নাপোলির চেয়ে ১৬ পয়েন্ট এগিয়ে গেছে গত সাতবারসহ প্রতিযোগিতাটিতে রেকর্ড ৩৪ বারের চ্যাম্পিয়নরা।
চলতি আসরেও যে দুর্দান্ত ছন্দে এগিয়ে চলেছে ইউভেন্তুস তাতে লিগের বাকি সময়ে অতি নাটকীয় কিছু না ঘটলে এখন পর্যন্ত অপরাজিত দলটির টানা অষ্টম শিরোপা জয় কেবল সময়ের ব্যাপার।
শিরোপাধারীদের বিপক্ষে লড়াইয়ের প্রথম দিকেই বড় ধাক্কা খায় নাপোলি। ফরাসি ডিফেন্ডার কেভিনের দুর্বল ব্যাকপাস ধরে আগুয়ান গোলরক্ষক আলেক্স পেরেতকে ফাঁকি দিয়ে ডি-বক্সে ঢুকে পড়তে যাচ্ছিলেন রোনালদো। তাকে ফাউল করে থামান পেরেত, দেখেন লাল কার্ড। ২৮তম মিনিটে ডি-বক্সের একটু বাইরে থেকে দারুণ বাঁকানো ওই ফ্রি-কিকেই রক্ষণ প্রাচীরের উপর দিয়ে বল ঠিকানায় পাঠান মিরালেম পিয়ানিচ।
একজন কম নিয়েও পরের কয়েক মিনিটে বেশ কয়েকটি ভালো আক্রমণ করে স্বাগতিকরা। কিন্তু বিরতির আগে সাফল্যের দেখা পায়নি তারা। গোল হজম করার দুই মিনিট পরেই সমতায় ফিরতে পারতো দলটি। কিন্তু পাল্টা আক্রমণে পিয়ত্র জিয়েলিন্সকির কোনাকুনি শট গোলরক্ষককে পরাস্ত করলেও পোস্টে লেগে ফেরে।
উল্টো ৩৯তম মিনিটে আবারও গোল খেয়ে বসে তারা। ডান দিক থেকে ফেদেরিকো বের্নারদেস্কির ক্রস ছোট ডি-বক্সের মুখে পেয়ে হেডে বল জালে পাঠান এমরে কান। বল এক ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে দিক পাল্টে ঠিকানা খুঁজে নেয়।
দ্বিতীয়ার্ধের দ্বিতীয় মিনিটে মাঝমাঠের কাছে অহেতুক হাত দিয়ে বল ঠেকিয়ে দ্বিতীয় হলুদ দেখে মাঠ ছাড়েন বসনিয়ার মিডফিল্ডার পিয়ানিচ। ইউভেন্তুসও পরিণত হয় ১০ জনের দলে।
৬১তম মিনিটে ব্যবধান কমিয়ে লড়াইয়ে ফেরে নাপোলি। বাঁ দিক থেকে লরেঞ্জো ইনসিনিয়ের দারুণ ক্রস গোলমুখে পেয়ে নিখুঁত টোকায় গোলটি করেন স্প্যানিশ ফরোয়ার্ড হোসে কায়েহন।
জালের দেখা পেয়ে উজ্জীবিত নাপোলি আরও বেশি আক্রমণাত্মক হয়ে ওঠে। পরের ১৫ মিনিটে কয়েকটি ভালো সুযোগও তৈরি করে তারা; কিন্তু সমতাসূচক গোলের দেখা মেলেনি।
৮৩তম মিনিটে ইউভেন্তুসের ডি-বক্সে তাদের আলেক্স সান্দ্রোর হাতে বল লাগলে ভিএআরের সাহায্যে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। হলুদ কার্ডও দেখেন ব্রাজিলিয়ান ডিফেন্ডার। সমতায় ফেরার সুবর্ণ সুযোগ আসে নাপোলির সামনে। কিন্তু স্পট কিক পোস্টে মেরে হতাশ করেন ইটালিয়ান ফরোয়ার্ড ইনসিনিয়ে।
২৬ ম্যাচে ২৩ জয় ও দুই ড্রয়ে ইউভেন্তুসের পয়েন্ট ৭১। চতুর্থ হারের স্বাদ পাওয়া নাপোলির পয়েন্ট ৫৬।
৪৮ পয়েন্ট নিয়ে তৃতীয় স্থানে আছে ইন্টার মিলান।