ধনকুবের অনিল আম্বানি দোষী সাব্যস্ত

আদালত অবমাননার দায়ে রিলায়েন্স কমিউনিকেশনের চেয়ারম্যান ও ধনকুবের অনিল আম্বানিকে দোষী সাব্যস্ত করেছেন ভারতের সুপ্রিম কোর্ট। সেই সঙ্গে চার সপ্তাহের মধ্যে এরিকসন ইন্ডিয়াকে সাড়ে চার শ কোটি রুপি না মিটিয়ে দিলে জেল খাটতে হবে বলেও তাঁকে হুঁশিয়ার করে দিয়েছেন শীর্ষ আদালত। গতকাল বুধবার সুপ্রিম কোর্ট এ রায় দেন। এনডিটিভি অনলাইনের এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়। অনিল আম্বানি ছাড়াও রিলায়েন্স কমিউনিকেশনের এক পরিচালক সতীশ শেঠ ও রিলায়েন্স ইনফ্রাটেলের চেয়ারপারসন ছায়া ভিরানিও আদালত অবমাননার দায়ে দোষী সাব্যস্ত হয়েছেন। তিনজনকেই এক কোটি রুপি করে জরিমানা দিতে হবে বলে জানিয়েছেন সুপ্রিম কোর্ট। এক মাসের মধ্যে এই জরিমানার টাকা পরিশোধ করতে হবে তাঁদের, না হলে কারাভোগ করতে হবে। ২০১৪ সালে এরিকসন ইন্ডিয়া অনিল আম্বানির সংস্থার সঙ্গে সাত বছরের একটি চুক্তি করে। কিন্তু চুক্তি অনুযায়ী অর্থ না মেটানোয় ঋণে জর্জরিত সংস্থার বিরুদ্ধে ‘ন্যাশনাল কোম্পানি ল অ্যাপেলট ট্রাইব্যুনালে’ মামলা করে এরিকসন ভারত। পরে অর্থ মেটানো হবে এমন রফা হয় দুই সংস্থার মধ্যে। গত বছরের ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে সেই অর্থ মেটানোর কথা ছিল রিলায়েন্স কমিউনিকেশনের। সেই অর্থ পরিশোধ করেনি তারা। পরে গত বছর ৫৫০ কোটি রুপি ঋণ মেটাচ্ছে না অনিল আম্বানির প্রতিষ্ঠানÑএমন অভিযোগ এনে সুপ্রিম কোর্টে যায় এরিকসন। গত বছরের ২৩ অক্টোবর আদালত রিলায়েন্স কমিউনিকেশনকে ১৫ ডিসেম্বরের মধ্যে ঋণ পরিশোধ করতে অনিল আম্বানির প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশ দেন। ঋণ পরিশোধ না করলে এই অর্থের সঙ্গে বাৎসরিক ১২ শতাংশ সুদ পরিশোধ করতে হবে বলেও হুঁশিয়ারি দেওয়া হয়। গতকাল বুধবার মামলার শুনানি শুরু হলে আদালত বলেন, ‘তাদের নির্দেশকে ইচ্ছাকৃতভাবে অমান্য করেছেন অনিল আম্বানি।’ ফলে আদালত অবমাননার দায়ে দোষী সাব্যস্ত হন তাঁরা।