শিবগঞ্জ মহাশ্মশানে বাবুল ঘোষকে শেষ বিদায়

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ, চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি বাবুল কুমার ঘোষের শেষকৃত্যানুষ্ঠান শিবগঞ্জ উপজেলার তরতিপুর মহাশ্মশানে অনুষ্ঠিত হয়েছে। রবিবার বিকেলে আনুষ্ঠানিকতা শেষে তাঁকে শেষ বিদায় জানানো হয়।
এদিকে, সকালে তাঁর মরদেহ ঢাকা থেকে চাঁপাইনবাবগঞ্জ শহরের পুরাতনবাজারের বাসভবনে আসলে জেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি মো. আব্দুল ওদুদ, সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব মনিম-উদ-দৌলা চৌধুরী, চেম্বারের সাবেক সভাপতি আব্দুল ওয়াহেদ, বিএমএর জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক ডা. গোলাম রাব্বানী, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনিরসহ রাজনৈতিক নেতা, সাংবাদিক, আইনজীবী, সাংস্কৃতিক কর্মীসহ অনেকেই একনজর দেখার জন্য ছুটে আসেন।
পরে, বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখা ও উপজেলা শাখার নেতৃবৃন্দ, বাংলাদেশ হিন্দু, বৌদ্ধ ও খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের জেলা নেতৃবৃন্দ, বাংলাদেশ সনাতন ফেডারেশনের স্থানীয় নেতৃবৃন্দ, ইসকনের জেলা প্রতিনিধি ও চিকিৎসক অসীত সরকার শেষ শ্রদ্ধা হিসেবে পুস্পস্তবক অর্পণ করেন।
পরে বাবুল ঘোষের মরদেহ ট্রাক যোগে শিবগঞ্জ মহাশ্মসান ঘাট এলাকায় পৌঁছালে সেখানে এক শোকসভা অনুষ্ঠিত হয়। এ সময় শিবগঞ্জ পূজা উদযাপন কমিটির পক্ষ থেকে শ্রী প্রদীপ কুমার বড়গড়িয়া মরদেহে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান। পরে সংক্ষিপ্ত শোকসভায় বক্তব্য দেন, প্রয়াত বাবুল কুমার ঘোষের মেয়ে, ছোট ভাই সাংবাদিক ডাবলু কুমার ঘোষ, মনিরুজ্জামান মনির, শিবগঞ্জ উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি শ্রী প্রদীপ কুমার বড়গড়িয়া, সাধারন সম্পাদক প্রশান্ত দাস,তরতিপুর মহাশ্মাসান কমিটির সভাপতি শ্রী সাধন কুমার মনিগ্রাম, সাধারণ সম্পাদক শ্রী কোমল কুমার ত্রিবেদী, গোমস্তাপুর পূজা উদযাপন কমিটির সাধারণ সম্পাদক শ্রী দিলীপ কুমার সহ স্থানীয় হিন্দু ধর্মাম্বলীর নেতারা।
এদিকে, তার অকাল মৃত্যুতে জেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে দলীয় পতাকা অর্ধনমিত ও কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়।
উল্লেখ্য, গত ৯ ফেব্রুয়ারি সন্ধ্যা ৬ টা ২০ মিনিটে ঢাকার মগবাজারের একটি বেসরকারি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি পরলোকগমন করেন।