আওয়ামী লীগ নেতা বাবুল ঘোষের পরলোক গমন

সাংবাদিক ডাবলু কুমার ঘোষের বড় ভাই চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক ও বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতি বাবুল কুমার ঘোষ পরলোক গমন করেছেন। শনিবার সন্ধ্যা ৬ টা ২০ মিনিটে ঢাকার মগবাজারে বেসরকারি হাসপাতাল রাসমনিতে চিকিৎসাধীন অবস্থায় তিনি শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেন (‘দিব্যান লোকান সগচ্ছতু’)। মৃত্যুকালে তাঁর বয়স হয়েছিল ৫৮ বছর। তিনি স্ত্রী, ১ ছেলে, ১ মেয়েসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। তাঁর মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পড়লে তাঁর বাসভবনে ছুটে যান, রাজনৈতিক নেতা, সাংবাদিক, আইনজীবী, সাংস্কৃতিক কর্মীসহ অনেকেই।
বাবুল কুমার ঘোষ ঢাকায় অবস্থানকালে গত ৭ ফেব্রুয়ারি ভোর ৫ টায় হঠাৎ অসুস্থ হয়ে পড়েন এবং সেখানেই চিকিৎসাধীন ছিলেন।
প্রয়াত বাবুল কুমার ঘোষ, তৎকালীন পৌরসভার চেয়ারম্যান আব্দুল মান্নান সেন্টুর ঘনিষ্ঠ সহচর ছিলেন। তিনি স্বৈরাচার বিরোধী আন্দোলনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করেন এবং বেশ কয়েকবার কারাবরণ করেন। একসময় সাংবাদিকতা পেশার সাথেও যুক্ত ছিলেন। পরে তিনি আওয়ামী লীগে যোগদান করেন। এছাড়া, সামাজিক বিভিন্ন কর্মকাœ্ডর সাথে জড়িত ছিলেন।
বাংলাদেশ পূজা উদযাপন পরিষদ চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলা শাখার সভাপতির দায়িত্ব কাঁধে নেন সদা মিষ্টভাষী বাবুল কুমার ঘোষ। রবিবার চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌর কেন্দ্রীয় শ্মশানে তাঁর অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া সম্পন্ন হবে বলে পরিবার সূত্রে জানা গেছে।
তার মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন সাবেক ছাত্রলীগ নেতা ও বর্তমান যুবলীগ সাধারণ সম্পাদক শহীদুল হুদা অলক, তিনি বলেন বাবুল কুমার ঘোষের মত তৎকালীন ছাত্রনেতাদের দেখেই আমরা ছাত্র রাজনীতিতে যুক্ত হয়েছিলাম, চাঁপাইনবাবগঞ্জে প্রগতিশীল চর্চার বড় কারিগরই ছিলেন বাবুল দা, মিজান ভাইসহ অন্যরা।
তাঁর মৃত্যুতে জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সাবেক এমপি মো. আব্দুল ওদুদ, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির, সিটি প্রেসক্লাবের সভাপতি সাজেদুল হক সাজু, সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল ইসলাম ইমনসহ সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ শোক জানিয়েছেন। শোক জানিয়েছেন হিন্দ বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ, বাংলাদেশ পূজা উদ্যাপন পরিষদের নেতৃবৃন্দ।