র‌্যাব ও বিজিবির পৃথক অভিযান : অস্ত্র ও মাদক উদ্ধার, গ্রেপ্তার ৪ জন

চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও গোদাগাড়ীতে পৃথক পৃথক অভিযানে অস্ত্র ও মাদকসহ ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এর মধ্যে র‌্যাব-৫, রাজশাহীর মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের সদস্যরা অস্ত্রসহ একজনকে, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ক্যাম্পের সদস্য ফেন্সিডিলসহ ২জনকে এবং বিজিবি, ৫৯ ব্যাটালিয়নের সদস্য ইয়াবাও হেরোইনসহ গ্রেপ্তার করেন।
এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে র‌্যাব-৫ জানায়, র‌্যাব-৫, রাজশাহীর মোল্লাপাড়া ক্যাম্পের একটি অপারেশন দল সোমবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে কোম্পানী কমান্ডারের নেতৃত্বে চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলা কয়লাবাড়ী গ্রামে অভিযান পরিচালনা করে। অভিযানে ২টি ৭.৬৫ মি.মি. বিদেশী পিস্তল, ৪টি পিস্তলের ম্যাগাজিন, ১৪ রাউন্ড পিস্তলের গুলিসহ মো. এনামুল ইসলাম ওরফে বানসু (৩৮) নামে এক অস্ত্র ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার হওয়া অস্ত্র ব্যবসায়ি উপজেলার রাণীবাড়ী চাঁদপুর গ্রামের মো. জামাল হোসেনের ছেলে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তারকৃত মো. এনামুল ইসলাম ওরফে বানসু দীর্ঘদিন যাবৎ অবৈধ অস্ত্র ব্যবসার সাথে জড়িত থাকার কথা স্বীকার করেন বলে র‌্যাব জানায়।
র‌্যাব-৫ এর অপর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ক্যাম্পের একটি অপারেশন দল কোম্পানী কমান্ডারের নেতৃত্বে সোমবার দুপুর সোয়া ১২টায় রাজশাহী জেলার গোদাগাড়ী উপজেলার গোদাগাড়ী গোল চত্বর এলাকার ডাইনপাড়ায় অভিযান পরিচালনা করে ১ হাজার ৫শ বোতল ফেন্সিডিল, ১টি নসিমনসহ ২জন মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃতরা হলেন শিবগঞ্জ উপজেলার রসুনচক গ্রামের মৃত রজবুল আলীর ছেলে মো. মশিদুল (২১), একবরপুর আইড়ামারী গ্রামের মো. সামেদ আলীর ছেলে মো. মাসুদ (২০)।
অপর দিকে চাঁপাইনবাবগঞ্জের শিবগঞ্জ উপজেলার আজমতপুর সীমান্ত এলাকায় মালিকবিহীন অবস্থায় ৪৬১ বোতল ফেন্সিডিল ও সোনামসচিদ এলাকা থেকে ৪ পিস ইয়াব, ৫ পুরিয়া হেরোইনসহ একজনকে গ্রেপ্তার করেন ৫৯ বিজিবির সদস্যরা।
৫৯ ব্যাটালিয়ন থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, শিবগঞ্জ উপজেলার বাগিচাপাড়া এলাকা দিয়ে কতিপয় মাদক ব্যবসায়ী বাংলাদেশের অভ্যন্তরে অবৈধভাবে কিছু মাদকদ্রব্য নিয়ে প্রবেশ করাবে। এমন গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে সোমবার গভীর রাতে ৫৯ ব্যাটালিয়নের অধিনস্থ আজমতপুর বিওপির টহল কমান্ডার নায়েক সেতু রঞ্জন সাহার নেতৃত্বে টহল দল সীমান্ত পিলার ১৮২/১-এস হতে আনুমানিক ৫শ গজ বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বাগিচাপাড়া আম বাগানের মধ্য অবস্থান করে। এক পর্যায়ে টহল দলের উপস্থিতি টের পেয়ে চোরাকারবারীরা তাদের সাথে থাকা মালামাল ফেলে অন্ধকারের মধ্যে ভারতের দিকে পালিয়ে যায়। পরে টহল দল ওই এলাকা তল্লাশী করে চোরাকারবারীদের ফেলে যাওয়া বস্তা হতে ৪৬১ বোতল ফেন্সিডিল উদ্ধার করে। ফেন্সিডিলগুলো মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ কার্যালয়ে জমা দেয়ার কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন রয়েছে।
৫৯ ব্যাটালিয়ন থেকে গণমাধ্যমে পাঠানো অপর সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, গোয়েন্দা তথ্যের ৫৯ ব্যাটালিয়নের অধিনস্থ সোনামসজিদ বিওপির টহল কমান্ডার হাবিলদার বদিউল আলমের নেতৃত্বে টহল দল সোনামসজিদ স্থলবন্দ হতে দেহ তল্লাশী করে ৪ পিস ইয়াবা ও ৫ পুরিয়া হেরোইনসহ মো. মিজানুর রহমান মেজর নামে একজনকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তার ব্যক্তি শিয়ালমারা গ্রামের মো. আব্দুর রহিমের ছেলে।
মাদক দ্রব্যা ও চোরাচালানের বিরুদ্ধে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের এই অভিযান অব্যাহত থাকবে।