অস্ট্রেলিয়ার হাজারতম জয়

 ভারতের কাছে টেস্ট সিরিজে হেরে যাওয়া অস্ট্রেলিয়া ওয়ানডে সিরিজ শুরু করেছে জয় দিয়ে। সেঞ্চুরিয়ান রোহিত শর্মাকে থামিয়ে প্রথম দল হিসেবে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এক হাজার ম্যাচ জয়ের মাইলফলক স্পর্শ করেছে দলটি।
সিডনিতে প্রথম ওয়ানডে ৩৪ রানে জিতে ৩ ম্যাচের সিরিজে এগিয়ে গেছে অ্যারন ফিঞ্চের দল। ২৮৮ রান তাড়ায় ভারত ৯ উইকেটে করে ২৫৪। ১৮৫২ ম্যাচে হাজারতম জয় পেল অস্ট্রেলিয়া। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে আটশ ম্যাচও জিততে পারেনি আর কোনো দল।
সিডনি ক্রিকেট গ্রাউন্ডে শনিবার টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা ভালো হয়নি অস্ট্রেলিয়ার। শুরুতেই ফিরে যান অধিনায়ক ফিঞ্চ। থিতু হয়ে বিদায় নেন অ্যালেক্স কেয়ারি।
সাবধানী ব্যাটিংয়ে দলকে এগিয়ে নেন উসমান খাওয়াজা ও শন মার্শ। নড়বড়ে শুরুর পর শট খেলতে শুরু করা খাওয়াজাকে এলবিডব্লিউর ফাঁদে ফেলে ৯২ রানের জুটি ভাঙেন রবীন্দ্র জাদেজা। খাওয়াজা ৬ চারে ৮১ বলে করেন ৫৯ রান।
ক্রিজে গিয়েই শট খেলতে শুরু করেন পিটার হ্যান্ডসকম। তার সঙ্গে ৫৩ রানের জুটি গড়ে বিদায় নেন মার্শ। ৭০ বলে খেলা তার ৫৪ রানের ইনিংস গড়া চারটি চারে।
পঞ্চম উইকেটে হ্যান্ডসকম ও স্টয়নিসের ব্যাটে আরেকটি পঞ্চাশ ছোঁয়া জুটি পায় অস্ট্রেলিয়া। ৬১ বলে ৬ চার ও দুই ছক্কায় ৭৩ রান করা হ্যান্ডসকমকে ফিরিয়ে বিপজ্জনক হয়ে উঠা জুটি ভাঙেন ভুবনেশ্বর কুমার। গ্লেন ম্যাক্সওয়েলকে নিয়ে দলকে তিনশ রানের কাছে নিয়ে যান স্টয়নিস।
রান তাড়ায় শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি ভারতের। রানের খাতা খোলার আগেই শিখর ধাওয়ানকে ফেরান জেসন বেহরেনডর্ফ। চতুর্থ ওভারে ৩ বলের মধ্যে বিরাট কোহলি ও অম্বাতি রাইডুকে বিদায় করে সফরকারীদের কাঁপিয়ে দেন জাই রিচার্ডসন।
৪ রানে ৩ উইকেট হারানো ভারত প্রতিরোধ গড়ে রোহিত ও মহেন্দ্র সিং ধোনির ব্যাটে। ১৩৭ রানের জুটিতে প্রতিরোধ গড়েন দুই অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যান। মন্থর ব্যাটিংয়ে এগোনো ধোনি বিদায় নেন পঞ্চাশ ছোঁয়ার পরপরই। বেহরেনডর্ফকে ফ্লিক করতে গিয়ে লাইন মিস করে এলবিডব্লিউ হওয়া কিপার ব্যাটসম্যান ৯৬ বলে করেন ৫১ রান।
দিনেশ কার্তিক ও জাদেজা খুব একটা সঙ্গ দিতে পারেননি রোহিতকে। মন্থর শুরু করা ভারতের ওপেনার রানের খাতা খুলেছিলেন মুখোমুখি হওয়া ১৮তম বলে, ফ্রি হিটে ছক্কা হাঁকিয়ে। বাউন্ডারির জন্য অপেক্ষা করেছেন বাজে বলের, এক-দুই করে নিয়ে সচল রাখেন রানের চাকা।
অন্য প্রান্ত থেকে খুব একটা সহায়তা না পাওয়া রোহিত সেঞ্চুরির পর চড়াও হয়েছিলেন বোলারদের ওপর। অতিরিক্ত আক্রমণাত্মক খেলতে গিয়ে থামেন এই ওপেনার। মার্কাস স্টয়নিসের স্লোয়ারে ধরা পড়েন সীমানায়।
২১তম সেঞ্চুরি পাওয়া রোহিত ১২৯ বলে ১০ চার ও ৬ ছক্কায় ফিরেন ১৩৩ রান করে। তার বিদায়ের পর ভুবনেশ্বর কুমারের দৃঢ়তায় আড়াইশ ছাড়ায় ভারতের সংগ্রহ।
দারুণ বোলিংয়ে ২৬ রানে ৪ উইকেট নেন রিচার্ডসন। ম্যাচে পার্থক্য গড়ে দেওয়া এই ডানহাতি পেসার জেতেন ম্যাচ সেরার পুরস্কার। ২০১০ সালের ৫ নভেম্বরের পর প্রথমবারের মতো এই সংস্করণে খেলতে নামা পেসার পিটার সিডল নেন ১ উইকেট।
আগামী মঙ্গলবার সিরিজ জয়ের লক্ষ্যে অ্যাডিলেইডে ভারতের মুখোমুখি হবে অস্ট্রেলিয়া।
সংক্ষিপ্ত স্কোর:
অস্ট্রেলিয়া: ৫০ ওভারে ২৮৮/৫ (কেয়ারি ২৪, ফিঞ্চ ৬, খাওয়াজা ৫৯, মার্শ ৫৪, হ্যান্ডসকম ৭৩, স্টয়নিস ৪৭*, ম্যাক্সওয়েল ১১*; ভুবনেশ্বর ২/৬৬, খলিল ০/৫৫, শামি ০/৪৬, কুলদীপ ২/৫৪, জাদেজা ১/৪৮, রায়ডু ০/১৩)
ভারত: ৫০ ওভারে ২৫৪/৯ (রোহিত ১৩৩, ধাওয়ান ০, কোহলি ৩, রায়ডু ০, ধোনি ৫১, কার্তিক ১২, জাদেজা ৮, ভুবনেশ্বর ২৯*, কুলদীপ ৩, শামি ১; বেহরেনডর্ফ ২/৩৯, রিচার্ডসন ৪/২৬, সিডল ১/৪৮, লায়ন ০/৫০, স্টয়নিস ২/৬৬, ম্যাক্সওয়েল ০/১৮)
ফল: অস্ট্রেলিয়া ৩৪ রানে জয়ী
ম্যান অব দা ম্যাচ: জাই রিচার্ডসন