প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে প্রার্থী হবেন মার্কিন কংগ্রেসের প্রথম হিন্দু সদস্য তুলসি গ্যাবার্ড

২০২০ সালে যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিসেবে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দিয়েছেন কংগ্রেস সদস্য তুলসি গ্যাবার্ড। হাউস অব রিপ্রেজেন্টেটিভে হাওয়াইয়ের প্রতিনিধি গ্যাবার্ড মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে তার ইচ্ছার কথা জানিয়েছেন। গতকাল শনিবার রাতে প্রচারিত ওই সাক্ষাৎকারে তিনি আগামি সপ্তাহে তার প্রার্থীতার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দেওয়ার কথা জানিয়েছেন। কাতারভিত্তিক সংবাদমাধ্যম আল জাজিরা জানিয়েছে, প্রথম হিন্দু ধর্মালম্বী হিসেবে কংগ্রেস সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন ৩৭ বছর বয়সী গ্যাবার্ড। ইরাক যুদ্ধের প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতাও রয়েছে তার। ডেমোক্র্যাট প্রার্থী হিসেবে প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে অংশ নিতে হলে তাকে শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বিতার মুখে পড়তে হবে। ম্যাসাচুসেটসের সিনেটর এলিজাবেথ ওয়ারেন এরইমধ্যে কমিটি গঠন করে ফেলেছেন। প্রাথমিক অঙ্গরাজ্যগুলোতে সফরও শুরু করেছেন তিনি। ক্যালিফোর্নিয়ার সিনেটর কমলা হ্যারিস, নিউ জার্সির সিনেটর কোরি বুকার এবং ভারমোন্টের সিনেটর বার্নি স্যান্ডার্সও প্রেসিডেন্ট পদে প্রার্থী হতে প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণা দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে। ওবামা প্রশাসনের আবাসন প্রধান জুলিয়ান কাস্ত্রোও গতকাল শনিবার তার প্রার্থীতার ঘোষণা দেবেন বলে আশা করা হচ্ছে।
গ্যাবার্ড বলেন, এই সিদ্ধান্ত নেওয়ার পিছনে অনেক কারণ রয়েছে। আমেরিকার জনগন অনেক চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হয়েছে আর সেগুলো নিয়ে আমি উদ্বিগ্ন। সেকারণে আমি এসব সমাধানে আমি সাহায্য করতে চাই।
গ্যাবার্ড বলেছেন, তার মূল ইস্যু হবে যুদ্ধ ও শান্তি। জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলার লড়াইয়ে জোর দেওয়ার কথাও বলেছেন তিনি। সংস্কারের প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন অপরাধ বিচার ব্যবস্থার এবং সব আমেরিকাবাসীর জন্য স্বাস্থ্যসেবা নিশ্চিতের।
গ্যাবার্ডের প্রতিদ্বন্দ্বিতার ঘোষণাও বিতর্ক এড়াতে পারবে না। ২০১৬ সালে ট্রাম্পের প্রার্থী নির্বাচিত হওয়ার সময়ে তার সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছিলেন গ্যাবার্ড। সমালোচনাকারী ডেমোক্র্যাটদের সতর্ক করেছিলেন তিনি। এ ছাড়া সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাসার আল আসাদের সঙ্গেও সাক্ষাৎ করেছেন গ্যাবার্ড। সিরিয়ার জনগনের শান্তি জন্য ওই বৈঠক গুরুত্বপূর্ণ ছিলো বলে দাবি করে থাকেন তিনি।
আসাদের বিরুদ্ধে সিরিয়ার লাখ লাখ মানুষকে হত্যাসহ যুদ্ধাপরাধের অভিযোগ রয়েছে। আল জাজিরার খবরে বলা হয়েছে বেসামরিক মানুষের ওপর রাসায়নিক হামলায় সিরিয়ার নেতা আসাদ আসলেই জড়িত কিনা তানিয়ে প্রশ্ন করেছিলেন গ্যাবার্ড। ওই রাসায়নিক হামলার জেরে যুক্তরাষ্ট্র সিরিয়ার বিমান ঘাঁটিতে হামলা চালায়।
গ্যাবার্ডের প্রতিদ্বন্দ্বিতা ঘোষণার পরেই রিপাবলিক্যান শিবির থেকে তার সমালোচনা করে বিবৃতি দেওয়া হয়। হাওয়াইয়ের এই কংগ্রেস সদস্যকে ওয়াশিংটনে আসাদের মুখপাত্র দেওয়া হয়।
২০১৬ সালে হিলারি ক্লিনটনের প্রার্থীতার সময়ে প্রতিদ্বন্দ্বি বার্নি স্যান্ডার্সের সমর্থক ছিলেন গ্যাবার্ড। এই সমর্থন নিশ্চিত করতে ডেমোক্রাটিক ন্যাশনাল কমিটির ভাইস চেয়ারম্যানের পদ থেকে পদত্যাগ করেছিলেন তিনি।