প্রধানমন্ত্রীর বিশ্বাসের মর্যাদা দিতে চাই : নৌ প্রতিমন্ত্রী

যে বিশ্বাস নিয়ে প্রধানমন্ত্রী নৌ মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিয়েছেন, সবাইকে সঙ্গে নিয়ে তার প্রতিদান দিতে চান নতুন নৌপরিবহন প্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। বৃহস্পতিবার প্রথম সচিবালয়ে অফিস করতে এলে মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে নতুন প্রতিমন্ত্রীকে শুভেচ্ছা জানানো হয়। পরে সম্মেলন কক্ষে মন্ত্রণালয়ের কর্মকা- সম্পর্কে অবহিত হয়ে সবার সঙ্গে পরিচিত হন খালিদ মাহমুদ। আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক ও দিনাজপুর-২ আসন থেকে সাংসদ হিসেবে নির্বাচিত খালিদ মাহমুদ এবারই প্রথম শেখ হাসিনার সরকারে ঠাঁই পেয়েছেন। মন্ত্রণালয়ের কর্মকা- সম্পর্কে অবহিত হয়ে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ভূ-রাজনীতিতে বন্দরগুলোর ভূমিকা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কাজেই নৌ মন্ত্রণালয় বাংলাদেশের সার্বিক অর্থনৈতিক উন্নয়নের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। বাংলাদেশকে প্রধানমন্ত্রী যে উচ্চতায় ও যে সম্মানের জায়গায় নিয়ে গেছেন এই সম্মান ধরে রাখার ক্ষেত্রে এই মন্ত্রণালয়কে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করতে হবে এবং করবে বলে আমি বিশ্বাস করি। খালিদ বলেন, প্রধানমন্ত্রী আমাকে এই মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব দিয়েছেন, আমি তার প্রতি কৃতজ্ঞ। তিনি আমার প্রতি যে বিশ্বাস রেখেছেন আমি সেই বিশ্বাসের মর্যাদা দিতে চাই। এই মর্যাদা দেওয়ার ক্ষেত্রে আপনাদের সার্বিক সহযোগিতা প্রয়োজন। গত নির্বাচনে বাংলাদেশের সকল শ্রেণিপেশার মানুষ ঐক্যবদ্ধ হওয়ায় ঐতিহাসিক বিজয় এসেছে বলে মত দেন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ।

শেখ হাসিনার বিকল্প নেতৃত্ব দেশে নেই উল্লেখ করে তিনি বলেন, আমাদের সৌভাগ্য আমরা এ ধরনের একটি নেতৃত্ব পেয়েছি, আমাদের ঘুরে দাঁড়ানোর এটাই সময়। গত ১০ বছরে নৌ মন্ত্রণালয়সহ বাংলাদেশে যে অগ্রগতি হয়েছে আমাদেরকে এটা ধরে রাখতে হবে এবং ধরে রাখার জন্য আমাদের শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ঐক্যবদ্ধভাবে কাজ করতে হবে। মন্ত্রণালয়ের কাজকে এগিয়ে নেওয়ার জন্য গত ১০ বছর দায়িত্ব পালনকারী নৌমন্ত্রী শাজাহান খানকেও ধন্যবাদ জানান খালিদ মাহমুদ। মন্ত্রণালয় নিয়ে পরিকল্পনা জানতে চাইলে নৌপ্রতিমন্ত্রী বলেন, আমার ব্যক্তিগত পরিকল্পনার বিষয় নেই, এখানে আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রী নেতৃত্ব দিচ্ছেন, মন্ত্রিপরিষদ যে সিদ্ধান্ত নেবে সেটাই আমাদের বাস্তবায়ন করতে হবে। আওয়ামী লীগের নির্বাচনী ইশতেহারে আমরা সুস্পষ্টভাবে উল্লেখ করেছি আমরা কী করতে চাই। সেগুলো বাস্তবায়ন করাই আমাদের লক্ষ্য। আরেক প্রশ্নে খালিদ বলেন, নতুনদের পারফরম্যান্স দেখবেন বলে প্রধানমন্ত্রী সঠিক কথাই বলেছেন। তিনি মন্ত্রিসভার প্রধান, তার মন্ত্রিসভার সদস্যরা কীভাবে কাজ করছেন সেই দৃষ্টি রাখবেন। যেখানে আমাদের দুর্বলতা আছে, সফলতা আছে সব কিছুই তিনি চুলচেরা বিশ্লেষণ করবেন। যেখানে শেখ হাসিনা আমাদের প্রধান সেখানে অনেক কিছুই হালকা হয়ে যায়। আমার বিশ্বাস তিনি যেভাবে বাংলাদেশকে এগিয়ে নিয়ে যাচ্ছেন তার সঙ্গে কাজ করতে আমরা স্বাচ্ছন্দ্যবোধ করব এবং আমি মনে করি তিনি যেভাবে বন্ধুত্বসুলভ দৃষ্টিভঙ্গি ও দেশপ্রেম নিয়ে শুধু রাজনীতি নয়, বাংলাদেশকে নেতৃত্ব দিচ্ছেন আশা করি আমরা সফল হব।

SHARE