জনগণই ভোট কেন্দ্র পাহারা দেবে : মোহাম্মদ নাসিম

আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য, কেন্দ্রীয় ১৪ দলের মুখপাত্র এবং স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেছেন, কোন রাজনৈতিক দলের নেতাকর্মীদের ভোট কেন্দ্র পাহাড়া দেয়ার দরকার নেই, কেন্দ্র পাহারা দেবে দেশের জনগণ। বৃহষ্পতিবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু এভিনিউস্থ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের কেন্দ্রীয় ১৪ দলের বৈঠক শেষে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন। আসন্ন একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ১৪ দলীয় জোটের প্রার্থীকে বিজয়ী করতে নির্বাচনী প্রচারনায় মাঠে নামার কর্মসূচি ঠিক করার লক্ষ্যে এই বৈঠকের আয়োজন করা হয়। ‘ভোট কেন্দ্র পাহারা দিতে হবে’ বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের এমন বক্তব্যের জবাবে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, ‘বিএনপি নেতারা কেন যে আহেতুক হুমকি ধামকি দিচ্ছেন বুঝি না। ভোট কেন্দ্র কেন আপনাদের পাহারা দিতে হবে। আপনাদের ভোট কেন্দ্র পাহারা দেয়ার দরকার নেই। ভোট কেন্দ্র পাহাড়া দেবে এদেশের জনগণ।’ বিজয়ের মাসে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে দেশের জনগণ ভোট দিয়ে বিজয়ী করবে এমন আশা প্রকাশ করে তিনি বলেন, আগামী ৩০ডিসেম্বরের নির্বাচন হবে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তির বিজয়ের নির্বাচন। বিজয়ের মাসে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তির কখনো পরাজয় হতে পারে না। তাই আমরা আশা করি বিজয়ের মাসে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তি বিজয় লাভ করবে। ‘নির্বাচনের সুষ্ঠু পরিবেশ ও লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড তৈরি হচ্ছে না’ ঐক্যফ্রন্টের অন্যতম নেতা ড কামাল হোসেনের এমন বক্তব্যের জবাবে মোহাম্মদ নাসিম বলেন, অহেতুক অভিযোগ করা তাদের একটা অভ্যাসে পরিনত হয়েছে। কামাল হোসেন যা বলেছেন ঠিক বলেননি। সারাদেশের সকল স্থানে নির্বাচনের পরিবেশ এখনও সুষ্ঠ রয়েছে। সকল দলের প্রার্থীরা যে যার মত করে প্রচার প্রচারনা চালাচ্ছে। তরুণ প্রজন্মকে তাদের প্রথম ভোট স্বাধীনতার পক্ষের প্রার্থীকে দেয়ার আহবান জানিয়ে নৌপরিবহন মন্ত্রী ও সম্মিলিত মুক্তিযোদ্ধা সংসদের আহবায়ক শাজাহান খান বলেন, আসন্ন নির্বাচনে স্বাধীনতার পক্ষের শক্তির বিজয়ের কোন বিকল্প নেই। তাই দেশের জনগণকে অনুরোধ করবো আপনারা স্বাধীনতার বিরোধী শক্তির কোন প্রার্থীকে ভোট দিবেন না। এর আগে মোহাম্মদ নাসিমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়য়া, জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার, ন্যাপ নেতা ইসমাইল হোসেন, বাসদের আহবায়ক রেজাউর রশিদ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

SHARE