রহনপুর রেল বন্দর দিয়ে ভারত হয়ে নেপালে মালামাল পরিবহণ বৃদ্ধি করা হবে : নেপালী রাষ্ট্রদূত

ঢাকায় নিযুক্ত নেপালী রাষ্ট্রদূত প্রফেসর ড. চুপলাল ভূষাল বলেছেন, বিভিন্নদেশ থেকে আমদানিকৃত পণ্যসামগ্রী রেলযোগে নেপালে নেয়ার জন্য রহনপুর-সিংগাবাদ রেলরুটকে তারা প্রাধান্য দিচ্ছেন। মঙ্গলবার চাঁপাইনবাবগঞ্জের গোমস্তাপুর উপজেলার রহনপুর রেল বন্দর পরিদর্শনকালে তিনি এ কথা বলেন। তিনি আরও জানান, আসন্ন সংসদ নির্বাচনের পর এ বিষয়ে বাংলাদেশ ও ভারত সরকারের সাথে যোগাযোগ করে রেল কানেকটিভিটি আরও জোরদার করা হবে। এছাড়া স্থলপথে ভারত হয়ে নেপালে যাওয়া বাংলাদেশী পর্যটকদের নেপালে অবস্থান বৃদ্ধির বিষয়ে ভারত সরকারের সঙ্গে আলোচনা করা হবে। তিনি মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে রাজশাহী থেকে সড়ক পথে রহনপুর রেলবন্দরে এসে উপস্থিত হন। এসময় তাকে স্বাগত জানান, রহনপুর রেলস্টেশন মাস্টার মির্জা কামরুল ইসলাম। এ সময় উপস্থিত ছিলেন রেলওয়ের পশ্চিমাঞ্চলীয় জোনের ডিভিশনাল ট্রান্সপোর্ট ম্যানেজার আল মামুন, প্রকৌশল বিভাগের কর্মকর্তাসহ গোমস্তাপুর থানার ওসি (তদন্ত) এসএম জাকারিয়া, রহনপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মাহতাব আলী। পরে তিনি উপজেলার সীমান্তবর্তী ইউনিয়ন বাঙ্গাবাড়ীর শিবরামপুরে জিরো পয়েন্ট পরিদর্শন করেন।
প্রসঙ্গত, বর্তমানে চীন থেকে আমদানি করা ডিএপি সার মংলা বন্দর হয়ে সড়ক পথে যশোরে নোয়াপাড়া রেলস্টেশন থেকে রহনপুর-সিংগাবাদ রেল রুট হয়ে নেপাল সীমান্তবর্তী ভারতীয় যোগবানী ও রক্সশাল স্টেশনের মাধ্যমে সড়ক পথে নেপালে নেয়া হয়। চলতি নভেম্বর মাসে ৪টি ও গত অক্টোবর মাসে ২টিসহ মোট ৬টি র‌্যাক সার এ রুট দিয়ে নেপালে পরিবহন করা হয়েছে।