নিয়ামতপুরে আমন ধান কাটা শুরু : উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে

নওগাঁর নিয়ামতপুর উপজেলায় আমনধান কাটা মাড়ায় শুরু হয়েছে। চলতি মৌসুমে উৎপাদন লক্ষ্যমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে বলে আশা করছেন কৃষক ও কৃষি বিভাগ।
উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা জানান, চলতি মৌসুমে আবহাওয়া অনুকূল থাকার কারণে আমন ধানের বাম্পার ফলন হচ্ছে। এবছর উপজেলায় ২৪ হাজার ৪শ ৫০হেক্টর আবাদের লক্ষ্য মাত্রা নির্ধারণ করা ছিল। তাবে ৫ হাজার ৪শ ৯০ হেক্টর বেশি জমি আবাদ হয়েছে। এর মধ্যে ২৫ হাজার ৪শ ৪৫হেক্টর জমিতে উফশী উন্নত জাতের ব্রি ৫৬,৪৯, ৬২, ৭১ জাত ধানের আবাদ ছাড়াও স্থানীয় জাতের সরু চিকন আবাদ ৪হাজার ৫শ ৮৫হেক্টর হয়েছে। নির্ধারিত জমি থেকে ধান উৎপাদন লক্ষ্য মাত্রা ১লক্ষ ৪৯হাজার ৮শ মেট্টিক টন হবে।
উপজেলা কৃষি অফিসের উদ্ভিদ সংরক্ষণ কর্মকর্তা শফিউল আলম বলেন, উপজেলায় উন্নতমানের বীজ উৎপাদন, সংরক্ষণ ও উৎপাদনের লক্ষ্যে ১২০টি প্রদর্শনীর ব্যবস্থা হয়েছে। কৃষকদের উৎপাদনের ক্ষেত্রে জমিতে পাচিং, আলোক ফাঁদ, রোগ বালাই দমনে লিফলেট বিতরণ, সম্পূরক সেচ ব্যবস্থাও হয়েছে। ফলে এবছর ফসলের রোগ বালাই ও পোকা মাকড়ের আক্রমন অনেকটাই কম ছিল।
উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে উপজেলার শিদাইন গ্রামের কৃষক সুলতান, আব্দুল মজিদ, এবং জিনপুর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক ও আবুল কাশেমের সাথে কথা হলে তারা জানান আগাম জাতের ধান করে ফলন ও দাম ভালো পাচ্ছি। আগাম জাতের এই ধান একর প্রতি ৬২ থেকে ৬৮ মণ ফলন হচ্ছে। আবার একই জমিতে আরেক টি বাড়তি ফসল, আলু সরিষার মতো অল্প সময়ে ফসল করে ইরির ধান ও সময় মত লাগাতে পারবো। তাতে আমরা বাড়তি ফসল করে বেশি লাভ পাচ্ছি।

SHARE