পাকিস্তান টি-টোয়েন্টিতে অস্ট্রেলিয়াকে হোয়াইটওয়াশ করল

টপ অর্ডার পথ দেখাল। বাবর আজমের ফিফটিতে পাকিস্তান পেল লড়াইয়ের পুঁজি। বাকিটা সহজেই সারলেন বোলাররা। টি-টোয়েন্টি সিরিজে অস্ট্রেলিয়াকে হোয়াইটওয়াশ করেই ছাড়ল সরফরাজ আহমেদের দল।
তৃতীয় ও শেষ টি-টোয়েন্টিতে ৩৩ রানে জিতেছে পাকিস্তান। ১৫০ রান তাড়ায় পাঁচ বল বাকি থাকতে ১১৭ রানে গুটিয়ে যায় অস্ট্রেলিয়া।
দুবাই ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট স্টেডিয়ামে রোববার টস জিতে ব্যাট করতে নেমে শাহিবজাদা ফারহানের সঙ্গে ৯৩ রানের জুটিতে দলকে দৃঢ় ভিতের ওপর দাঁড় করার বাবর।
৩৮ বলে ৩৯ রান করা ফারহানকে ফিরিয়ে শুরুর জুটি ভাঙেন ন্যাথান লায়ন। ৪০ বলে ৫ চার ও ১ ছক্কায় ৫০ রান করা বাবরকে বোল্ড করে থামান অ্যান্ড্রু টাই।
দুই ওপেনারের এনে দেওয়া ভালো শুরু কাজে লাগাতে পারেনি পাকিস্তান। তবে ২০ বলে মোহাম্মদ হাফিজের অপরাজিত ৩২ আর ১২ বলে শোয়েব মালিকের ১৮ রান দলটিকে নিয়ে যান দেড়শ রানে।
১৯তম ওভারে বোলিংয়ে এসে ৬ রানে ২ উইকেট নেন অস্ট্রেলিয়ার মিচেল মার্শ।
আগের দুই ম্যাচে দারুণ বোলিং করে দলকে জয় এনে দেওয়া ইমাদ ওয়াসিমের প্রথম ওভার থেকে দুটি করে ছক্কা-চারে ২০ রান নিয়ে উড়ন্ত সূচনা এনে দেন অ্যালেক্স ক্যারি। তবে দলটির উল্টো পথে যাওয়ার শুরু পরের ওভার থেকে।
ইনিংসের দ্বিতীয় ওভারে অ্যারন ফিঞ্চকে ফেরান ফাহিম আশরাফ। ৯ বলে ২০ রান করা ক্যারিকে বিদায় করেন হাফিজ।
প্রত্যাশিত ঝড় তুলতে পারেননি ক্রিস লিন। শাদাব খানের বলে ক্যাচ দিয়ে শেষ হয় তার ১৫ রানের ইনিংস। সিরিজে তৃতীয়বারের মতো রান আউট হয়ে থামেন বেন ম্যাকডারমট।
শেষ সাত ব্যাটসম্যানের মধ্যে দুই অঙ্কে যান কেবল মার্শ। এক ছক্কায় তিনি ফিরেন ২৪ বলে ২১ করে। ১৫ বলে ১০ রান করা ডার্চি শর্টকে ফেরান উসমান খান। শেষের দিকে দ্রুত উইকেট হারানো অস্ট্রেলিয়া খেলতে পারেনি পুরো ২০ ওভার।
লেগ স্পিনে ১৯ রানে ৩ উইকেট নিয়ে ম্যাচ সেরার পুরস্কার জেতেন শাদাব খান। তিন ম্যাচ দুই ফিফটিতে সিরিজ সেরার পুরস্কার জেতেন বাবর।

সংক্ষিপ্ত স্কোর:
পাকিস্তান: ২০ ওভারে ১৫০/৫ (বাবর ৫০, ফারহান ৩৯, হাফিজ ৩২*, মালিক ১৮, আসিফ ৪, আশরাফ ০, ইমাদ ৩*; লায়ন ১/৩৩, কোল্টার-নাইল ০/২৯, টাই ১/৩০, শর্ট ০/২৭, জ্যাম্পা ১/২৫, মার্শ ২/৬)
অস্ট্রেলিয়া: ১৯.১ ওভারে ১১৭ (ক্যারি ২০, ফিঞ্চ ১, লিন ১৫, ম্যাকডারমট ২১, ম্যাক্সওয়েল ৪, মার্শ ২১, শর্ট ১০, কোল্টার-নাইল ০, টাই ৫, জ্যাম্পা ৯, লায়ন ৪: ইমাদ ০/৩৩, আশরাফ ১/৮, হাফিজ ১/১৬, হাসান ২/১৪, শাদাব ৩/১৯, উসমান ১/২২)
ফল: পাকিস্তান ৩৩ রানে জয়ী
সিরিজ: তিন ম্যাচের সিরিজে ৩-০তে জয়ী পাকিস্তান
ম্যান অব দা ম্যাচ: শাদাব খান
ম্যান অব দা সিরিজ: বাবর আজম