সরকারি হল আরও ১২ মাধ্যমিক বিদ্যালয়

আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর শিক্ষার মানোন্নয়নে ব্যাপক কর্মসূচি বাস্তবায়ন করায় এ খাতে অনেক সাফল্য অর্জিত হয়েছে। প্রাথমিক শিক্ষা ও মাধ্যমিক শিক্ষা ব্যবস্থার আধুনিকায়নসহ শিক্ষার মানোন্নয়নে পর্যাপ্ত একাডেমিক ভবন ও শ্রেণী কক্ষ নির্মাণ করা হয়েছে। আধুনিক ক্লাশরুম করে গড়ে তোলা হয়েছে।

সরকারি সিদ্ধান্ত অনুযায়ী, প্রতিটি উপজেলায় যোগ্য ও ঐতিহ্যবাহী শিক্ষা প্রতিষ্ঠান জাতীয়করণ কার্যক্রম অব্যাহত রয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় আরও ১২টি মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরকারিকরণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব লুৎফুন নাহার স্বাক্ষরিত এ সংক্রান্ত এক আদেশ জারি করা হয়েছে। বর্তমানে পুরাতন ও জাতীয়করণ মিলে সারাদেশে সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের মোট সংখ্যা দাঁড়ালো ৪৭৫টি।

নতুন জাতীয়করণ হওয়া ১২টি প্রতিষ্ঠান হচ্ছে- কিশোরগঞ্জের ভৈরবে ‘ভৈরব কে বি পাইলট মডেল হাই স্কুল’, ইটনায় ‘মহেশ চন্দ্র মহেল শিক্ষা নিকেতন’, নিকলী ‘জি.সি.পাইলট মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ’ ও হোসেনপুরে ‘হোসেনপুর মডেল পাইলট স্কুল অ্যান্ড কলেজ’, সিরাজগঞ্জের উল্লাপাড়ায় ‘উল্লাপাড়া মার্চেন্টস পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়’, নড়াইলের কালিয়ায় ‘কালিয়া পাইলট মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়’,  রাজশাহীর পুঠিয়ায় ‘পুঠিয়া পি এন উচ্চ বিদ্যালয়’, জয়পুরহাটের ক্ষেতলালে ‘ক্ষেতলাল পাইলট মডেল উচ্চ বিদ্যালয় ও কলেজ’ , কালাইয়ে ‘কালাই এম ইউ উচ্চ বিদ্যালয়’, আক্কেলপুরের ‘আক্কেলপুর এফ ইউ পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়’, বগুড়ার সোনাতলায় ‘সোনাতলা মডেল উচ্চ বিদ্যালয়’ এবং শরীয়তপুরের ডামুড্যায় ‘ডামুড্যা মুসলিম উচ্চ বিদ্যালয়’।

সরকারি নির্দেশনায় বলা হয়েছে পর্যায়ক্রমে এসব প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকদের জাতীয়করণ করা হবে। তাই এসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বর্তমানে কর্মরত কোনো শিক্ষক অন্যত্র বদলি হতে পারবেন না।

উল্লেখ্য, এর আগে সারাদেশে মোট ৪৬৩টি সরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় ছিল। এর মধ্যে পুরাতন ৩৩৩টি এবং ১২টি মডেল বিদ্যালয়সহ সরকারিকরণ হওয়া ১৩০টি বিদ্যালয় রয়েছে। বর্তমানে নতুন ১২টি বিদ্যালয়সহ এই সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ৪৭৫টিতে।

চলতি বছরে অর্ধ শতাধিক বেসরকারি মাধ্যমিক বিদ্যালয় সরকারি করা হয়েছে। গত সোমবার পাঁচটি বেসরকারি কলেজকে সরকারি করা হয়। এছাড়া গত ১২ আগস্ট সারা দেশের ২৭১টি বেসরকারি কলেজ সরকারি করা হয়েছে।

যেসব উপজেলায় সরকারি কলেজ ও মাধ্যমিক বিদ্যালয় নেই, সেখানে একটি করে কলেজ ও মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে সরকারি করছে সরকার। সেই ধারাবাহিকতায় নতুন করে ১২ টি মাধ্যমিক বিদ্যালয়কে সরকারিকরণ করা হয়েছে।