১৫ অগাস্ট ঘিরে কোনো হুমকি নেই : ডিএমপি কমিশনার

জাতীয় শোক দিবসের কর্মসূচি ঘিরে রাজধানীজুড়ে কঠোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ (ডিএমপি) কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া। মঙ্গলবার ধানম-ি ৩২ নম্বরে এক সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, ১৫ অগাস্ট ঘিরে কোনো হুমকি নেই। তবে কোনো কিছুই আমরা উড়িয়ে দিচ্ছি না। সকল বিষয় মাথায় রেখেই আমরা কয়েক স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নিয়েছি। এর অংশ হিসেবে গত সপ্তাহে বসুন্ধরা আবাসিক এলাকায় ‘ব্লক রেইড দেওয়া হয়েছিল জানিয়ে পুলিশ কমিশনার বলেন, সোমবার শেরেবাংলা নগর, শুক্রাবাদ, ধানম-ি, কলাবাগান ও রাজাবাজার এলাকাতেও ব্লক রেইড দেওয়া হয়েছে। আছাদুজ্জামান মিয়া বলেন, শোক দিবসে যারা জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে ধানম-ির ৩২ নম্বরে যাবেন, তাদের দাহ্য পদার্থ, ভ্যানিটি ব্যাগ, ছুরি-চাকু ধরনের যে কোনো ‘অস্ত্রজাতীয় দ্রব্য’ বহন করতে নিষেধ করা হয়েছে। আমাদের পর্যাপ্ত সিসি ক্যামেরা রয়েছে। সেগুলোর মাধ্যমে নিয়মিত মনিটরিং হচ্ছে। আর্চওয়ের মধ্য দিয়ে তল্লাশি পেরিয়ে সবাইকে অনুষ্ঠানস্থলে প্রবেশ করতে হবে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের মৃত্যুবার্ষিকীর উপলক্ষে বুধবার সকালে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী ধানম-ি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করবেন। তারা ফুল দিয়ে চলে যাওয়ার পর ৩২ নম্বর সবার জন্য উন্মুক্ত করে দেওয়া হবে। গতবছর এই শ্রদ্ধা নিবেদন পর্বের মধ্যেই বঙ্গবন্ধু স্মৃতি ভবন থেকে মাত্র ৩০০ মিটার দূরে পান্থপথের হোটেলে ওলিও ইন্টারন্যাশনালে পুলিশের অভিযানের মধ্যে এক জঙ্গি ‘আত্মঘাতী’ হয়। তখনকার পুলিশ মহাপরিদর্শক এ কে এম শহীদুল হক সে সময় বলেছিলেন, অগাস্টের শোকের মিছিলে আত্মঘাতী বোমা হামলা করে ‘শত শত লোক মেরে ফেলার’ প্রস্তুতি নিয়েছিল জঙ্গিরা। পুলিশ কমিশনার আছাদুজ্জামান মিয়া বুধবার বলেন, ওলিও ইন্টারন্যাশনালের মামলার তদন্ত শেষ পর্যায়ে। এ পর্যন্ত ১৪ জন ওই মামলায় গ্রেফতার হয়েছে। তাদের মধ্যে ১০ জন স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে। তিনি জানান, বুধবার সকালে শ্রদ্ধা নিবেদনের সময় সোনারগাঁও ক্রসিং থেকে রাসেল স্কয়ার, ধানম-ি ২৭ নম্বর থেকে রাসেল স্কয়ার, সিটি কলেজ থেকে রাসেল স্কয়ার পর্যন্ত যান চলাচল নিয়ন্ত্রণ করা হবে।