৬০ মণ ওজনের লাল্টু-পল্টু, দাম ২০ লাখ

বাগেরহাটের চিতলমারীতে ৩ বছর বয়সী যমজ এঁড়ে লাল্টু ও পল্টুকে নিয়ে রীতিমতো হৈ-চৈ পড়ে গেছে। যমজ এ পশু দুটিকে এক নজর দেখেতে দূর-দূরান্ত থেকে আসছেন অগুনতি মানুষ। কোরবানির ঈদকে সামনে রেখে এ গরুর মালিক ৬০ মণ ওজনের লাল্টু ও পল্টুর দাম হেঁকেছেন ২০ লাখ টাকা।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, উপজেলার হিজলা পূর্বপাড়া গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সেনা সার্জেন্ট মঞ্জুর আলম ২০১৩ সালে চাকরি শেষ করে বাড়িতে এসে একটি গরুর খামার করেন। বর্তমানে তার খামারে ১৪ টি গাভী ও দুটি বাছুরসহ লাল্টু ও পল্টু নামে ৩ বছর বয়সী দুটি যমজ এঁড়ে রয়েছে। আসন্ন ঈদে এ পশু দুটিকে বিক্রির ঘোষণা দেয়া হলে দেশের বিভিন্ন স্থান থেকে ক্রেতা ও উৎসুক লোকজন ওই খামারে এসে লাল্টু-পল্টুকে এক নজর দেখার জন্য ভিড় জমাচ্ছেন।

এ বিষয়ে মঞ্জুর আলমের সঙ্গে কথা হলে তিনি জানান, চাকরি শেষে অবসরে এসে অনেকে আরাম-আয়াসে সময় কাটান। কিন্তু তিনি বাড়িতে এসে কৃষিকাজসহ গরুর খামার করেছেন। এখান থেকে অনেকের সংসার চলছে। পাশাপাশি প্রতি বছর তিনি কয়েক লাখ টাকার গরু বিক্রি করেন। গত তিন বছর আগে তার খামারের একটি গাভীর এক সঙ্গে দুটি যমজ বাচ্চা হয়। লাল্টু ও পল্টু নামে তাদের ডাকা হয়। ওই বাচ্চা দুটিকে খুব যত্নসহকারে খামারে রাখা হয়। বর্তমানে লাল্টু ও পল্টুর ওজন ৬০ মণ। এছাড়া মঞ্জুর আলম আরও জানান ওই এঁড়ে দুটির জন্য খৈল, ভুসি ও অন্যান্য খাবারের জন্য প্রতিদিন ১ হাজার টাকা ব্যয় হচ্ছে। এই ঈদে এ পশু দুটিকে তিনি বিক্রি করতে চান। স্থানীয় গরু ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম জানান, এমন বড় সাইজের গরু এলাকায় আর দ্বিতীয়টি নেই। বাজার দর ভাল থাকলে ন্যায্য মূল্যে বিক্রি করতে পারবেন খামারি।

 

SHARE