নেইমার টার্গেট ছিলেন না, বলছে সুইজারল্যান্ড

সুইজারল্যান্ডের বিপক্ষে ম্যাচে প্রচুর ফাউলের শিকার হয়েছেন নেইমার। অনেকেই মনে করেছেন, নেইমারকে নিষ্ক্রিয় রাখতে শুধু তাঁকে লক্ষ্যবস্তু বানিয়ে মাঠে নেমেছিল সুইসরা। সুইজারল্যান্ড কোচ অবশ্য দাবিটা উড়িয়ে দিলেন। নেইমার সুইস ‘নৃশংসতা’র শিকার? অনেকেই তা মনে করছেন। শুধু ব্রাজিলীয় ফুটবলারদের বিবেচনায় নিলে ১৯৬৬ বিশ্বকাপের পর এত বেশি ফাউলের শিকার হননি আর কেউই। আর বিশ্বকাপ হিসেবে নিলে গত ২০ বছরের মধ্যে গতকালকের ম্যাচে সবচেয়ে বেশি ফাউলের শিকার হয়েছেন নেইমার। তাঁকে ১০ বার ফাউল করেছে সুইসরা। কিন্তু সুইজারল্যান্ডের কোচ ভøাদিমির পেটকোভিচের দাবি, নেইমারকে তারা লক্ষ্যবস্তু বানাননি। ভ্যালন বেহরামি, ফ্যাবিয়ান স্কার, স্টিফেন লিখটেইনারÑসুইজারল্যান্ডের এই তিন খেলোয়াড় নেইমারকে উপর্যুপরি ফাউলের জন্য রেফারির কার্ড দেখেছেন। গত ফেব্রুয়ারিতে পায়ের পাতার হাড় ভেঙে যাওয়ার পর দুটি প্রস্তুতি ম্যাচ খেললেও নেইমার সেভাবে ফিট ছিলেন না। তার ওপর সুইস খেলোয়াড়দের ক্রমাগত ফাউলে স্বাভাবিক খেলাটাও খেলতে পারেননি। তবে সুইজারল্যান্ডের কোচ পেটকোভিচের যুক্তি, শুধু নেইমারকে লক্ষ্য বানানো হয়নি, ‘না, বেশির ভাগ টক্করই (বল দখলের লড়াই) পরিষ্কার ছিল। তাঁকে নিষ্ক্রিয় রাখাটা ছিল কৌশলের অংশ। কিন্তু লক্ষ্য ছিল না, ব্রাজিল দলে আরও কজন ফুটবলার আছে যারা দারুণ খেলে থাকে। প্রথমার্ধে আমরা নিজেদের কৌশল কাজে লাগাতে পারিনি। তখন ব্রাজিল বিপজ্জনক হয়ে উঠেছিল। হলুদ কার্ড হয়তো বেশি হয়ে গেছে, তবে কোনো খারাপ ফাউল হয়নি।’

SHARE