ইরাকে শরণার্থীদের দেখতে গেলেন অ্যাঞ্জেলিনা জোলি

হলিউডের অভিনেত্রী ও জাতিসংঘের শরণার্থী সংস্থার বিশেষ দূত অ্যাঞ্জেলিনা জোলি ইরাকে শরণার্থীদের দেখতে গেলেন। মূলত সিরীয় শরণার্থীদের ক্যাম্প পরিদর্শন করেছেন তিনি। শরণার্থীদের ক্যাম্প পরিদর্শনের সময় তিনি সংঘাত এড়ানোর উপায় খোঁজার জন্য সবার প্রতি আহ্বান জানান। জোলি রবিবার ইরাকের উত্তরাঞ্চলের একটি শরণার্থী শিবিরে যান, যেখানে প্রায় ৩৩ হাজার শরণার্থীর বাস। তার আগের দিন তিনি ইরাকের ধ্বংসপ্রাপ্ত মসুল নগরীতে গিয়েছিলেন।মসুল পরিদর্শনের পর জাতিসংঘের ওয়েবসাইটে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে জোলি বলেন, ইউএনএইচসিআর-এর দূত হিসেবে আমি যেসব জায়গা পরিদর্শন করেছি তার মধ্যে এখানেই ধ্বংসচিত্র সবচেয়ে ভয়াবহ। এখানকার মানুষ সব কিছু হারিয়েছে। তারা পরিত্যক্ত হয়ে আছে। সেখানে শিশুদের জন্য কোনো ওষুধ নেই, সুপেয় পানি নেই। মৌলিক চাহিদা পূরণের কোনো ব্যবস্থাই সেখানে নেই।আইএস প্রায় তিন বছর ধরে মসুল দখল করে ছিল এবং তাদের ঘোষিত ‘ইসলামিক খেলাফতের’ গুরুত্বপূর্ণ অংশ ছিল নগরীটি। এরপর অবশ্য ইরাকি বাহিনী গত বছর ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিদের হটিয়ে মসুলের নিয়ন্ত্রণ নেয়। মসুলের চারিদিকে এখনও শুধুই ধ্বংসচিত্র। মসুল পুনর্গঠনের কাজ খুবই ধীরে চলছে বলে জানিয়েছেন সংশ্লিষ্টরা।

SHARE