চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভিক্ষুক পুনর্বাসন কর্মসূচি শুরু গরু-ছাগল-সেলাই মেশিন ও নগদ অর্থ বিতরণ

জেলা প্রশাসনের ভিক্ষুক পূনর্বাসন ও বিকল্প কর্মসংস্থান কর্মসূচি বাস্তবায়ন কর্মসূচির অংশ হিসেবে চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নে গতকাল বুধবার গরু ও ছাগল, নগদ টাকা, এবং ইসলামিক ফাউ-েশনের জাকাত ফান্ড থেকে সেলাই মেশিন বিতরণ করা হয়েছে। একই সাথে ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সরকারের দেওয়া ভিজিএফ চালসহ পোশাক বিতরণ করা হয়।
সকালে মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে ইউনিয়ন পরিষদ সংলগ্ন আম বাগানে এসব উপকরণ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন, চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর আসনের সংসদ সদস্য আব্দুল ওদুদ এবং বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন, জেলা প্রশাসক মো. মাহমুদুল হাসান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উপ-পরিচালক আবুল কালাম। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. আলমগীর হোসেন। সার্বিক তত্ত্বাবধানে ছিলেন, মহারাজপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব অধ্যক্ষ মো. এজাবুল হক বুলি।
চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভার ১৫ নম্বর ওয়ার্ড ও সদর উপজেলার মহারাজপুর ইউনিয়নকে পরীক্ষামূলকভাবে ভিক্ষুকমুক্ত এলাকা হিসেবে গড়ে তোলার জন্য বেছে নেয়া হয়েছে। এ লক্ষে সদর জেলা প্রশাসনের সহযোগিতায় উপজেলা প্রশাসনের ব্যবস্থাপনায় মহারাজপুর ইউনিয়নের ২২ জনকে ২০ হাজার টাকা মূল্যের গরু ও ছাগল এবং দোকান বা ক্ষুদ্র ব্যবসার জন্য নগদ ২০ হাজার করে টাকা, মহারাজপুর ইউপি চেয়ারম্যান অধ্যক্ষ এজাবুল বুলির ব্যক্তি উদ্যোগে একই কর্মসূচির আওতায় আরো ১২জনকে ২০ হাজার করে টাকা, ইউপি চেয়ারম্যানের ২টি ও ইসলামিক ফাউ-েশনের দেওয়া জাকাত ফান্ড থেকে ১৪টিসহ ১৬ জন নারীকে সেলাই মেশিন, ৪ হাজার জনকে ভিজিএফ ও ভিজিডির চাউল বিতরণ, ১ হাজার ২শ শাড়ি-লুঙ্গী, থ্রি পিস, ছোটদের পোশাক, পাঞ্জাবি বিতরণ করা হয়। পর্যায়ক্রমে ইউনিয়নের আরও অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে সহায়তা দেয়া হবে বলে জানিয়েছেন অতিথিরা।
প্রধান ও বিশেষ অতিথি বলেন, বর্তমান সরকার দরিদ্র অসহায় মানুষকে স্বাবলম্বী করার জন্য কাজ করে যাচ্ছে। এরই ধারাবাহিকতায় সারা দেশকে ভিক্ষুকমুক্ত করার জন্য উদ্যোগ হাতে নিয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলাতে এই কর্মসুচি চালু করা হল। সকলের আন্তরিক সহযোগিতায় এই জেলাকে ভিক্ষুকমুক্ত করা সম্ভব হবে।
প্রধান অতিথি বলেন, বর্তমান সরকার দরিদ্র বান্ধব সরকার। অসহায় মানুষদের পাশে দাঁড়িয়ে বর্তমান সরকার বিধবা, বয়স্ক, প্রতিবন্ধী, স্বামী পরিত্যাক্তাসহ বিভিন্ন ভাতা দিয়ে তাদের স্বাবলম্বী করার চেষ্টা করছেন। গৃহহীনদের ঘর নির্মাণ করে মাথা গোঁজার ঠাঁই করে দিচ্ছেন। এই ধারা অব্যাহত রাখতে হলে আগামীতেও আওয়ামী লীগকে ভোট দিয়ে ক্ষমতায় নিয়ে আসতে হবে। এসময় মহারাজপুর ইউনিয়নের ৫ সহ¯্রাধিক নারী-পুরুষ উপস্থিত ছিলেন।
প্রসঙ্গত, জেলার উন্নয়ন সংস্থা প্রয়াস মানবিক উন্নয়ন সোসাইটি সদর উপজেলার রানীহাটি ও নাচোল উপজেলার নেজামপুর ইউনিয়নে ভিক্ষুক পুনর্বাসন কর্মসূচি বাস্তবায়ন করছে।

SHARE